ঢাকা সোমবার
২০ মে ২০২৪
১৩ মে ২০২৪

এজেন্ট ব্যাংকিংয়ে এগিয়ে গ্রামীণ নারীরা


Reporter01
59

প্রকাশিত: ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪
এজেন্ট ব্যাংকিংয়ে এগিয়ে গ্রামীণ নারীরা Collected from google



নিজস্ব প্রতিবেদক

দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে ছড়িয়েছে এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের আলো। সুফলও পাচ্ছেন গ্রাহকরা। সহজেই টাকা জমা দেয়া ও তুলতে পারছেন। প্রবাসীদের পাঠানো অর্থও পৌঁছে যাচ্ছে কাঙ্ক্ষিত গ্রাহকের হাতে। এ সুবিধা পেতে অতিরিক্ত খরচ নেই। রিয়েল টাইম, সহজ ও সাশ্রয়ী হওয়ায় দিন দিন জনপ্রিয়তা পাচ্ছে এজেন্ট ব্যাংকিং। গ্রাহকদের বড় অংশ গ্রামীণ নারীরা। গত এক বছরে নারীদের হিসাব বেড়েছে ২৬ শতাংশ।

সম্প্রতি বাংলাদেশ ব্যাংকের এক প্রতিবেদনে এমন তথ্য উঠে এসেছে।

তথ্য অনুযায়ী, ২০২৩ সালের ডিসেম্বরে এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের হিসাব দাঁড়িয়েছে ২ কোটি ১৪ লাখ ১৮ হাজার ৮১৬। ২০২২ সালের ডিসেম্বরে ছিল ১ কোটি ৭৪ লাখ ৭৮ হাজার ৮৮৪। অর্থাৎ এক বছরের ব্যবধানে বেড়েছে ৩৯ লাখ ৩৯ হাজার ৯৩২; বা ২২ দশমিক ৫৪ শতাংশ। গত বছরে নারীদের হিসাব বেড়েছে ১ কোটি ৬ লাখ ১৮ হাজার ২৫৮। এর মধ্যে গ্রামীণ নারীদের হিসাব সংখ্যা ৯৪ লাখ ৭৯ হাজার ১৭। আর শহরাঞ্চলের নারীদের সংখ্যা ১১ লাখ ৩৯ হাজার ২৪১।

আলোচ্য সময়ে এজেন্ট ব্যাংকিংয়ে আমানত জমা পড়েছে ৩৫ হাজার ৯০২ কোটি টাকা। যেখানে আগের বছরের একই সময় পর্যন্ত ছিল ২৯ হাজার ৬৮৭ কোটি টাকা। অর্থাৎ বছরের ব্যবধানে ৬ হাজার ২১৫ কোটি টাকা আমানত বেড়েছে। শতাংশের হিসেবে বেড়েছে ২০ দশমিক ৯৩ শতাংশ।

গত ডিসেম্বর শেষে ব্যাংকগুলোর এজেন্টের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে ১৫ হাজার ৭৫৭। আর এজেন্ট ব্যাংকিং আউটলেট দাঁড়িয়েছে ২১ হাজার ৬০১। ২০২২ সালের একই সময়ে এজেন্টের পরিমাণ ছিল ১৫ হাজার ২২৬। আউটলেট ছিল ২০ হাজার ৮৩৬। অর্থাৎ বছরের ব্যবধানে এজেন্টের সংখ্যা বেড়েছে ৫৩১। আউটলেট বেড়েছে ৭৬৫।


আরও পড়ুন:

বিষয়: