স্মলক্যাপ প্লাটফর্মের মাধ্যমে ৯ কোম্পানি উত্তোলন করতে চায় ১১০ কোটি টাকা

শেয়ারবাজারের স্মলক্যাপ প্লাটফর্মে (এসএমই বোর্ড) কোয়ালিফাইড ইনভেস্টর অফারের (কিউআইও) মাধ্যমে ৯ কোম্পানি শেয়ারবাজার থেকে ১১০ কোটি টাকা উত্তোলন করতে চায়। বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

এরই মধ্যে নিয়ালকো অ্যালয়সকে কিউআইও’র মাধ্যমে অর্থ সংগ্রহের মাধ্যমে শেয়ারবাজারের স্মলক্যাপ প্লাটফর্মে (এসএমই বোর্ড) তালিকাভুক্তর অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। কোম্পানিটি ৭৫ লাখ শেয়ার ছেড়ে ৭ কোটি ৫০ লাখ টাকা উত্তোলন করবে।

স্মলক্যাপ প্লাটফর্মে তালিকাভুক্তির জন্য পাইপলাইনে থাকা কোম্পানিগুলো অন্য কোম্পানিগুলোর মধ্যে রয়েছে- সুব্রা সিস্টেমস, মাস্টার ফিড এগ্রোটেক, অরিজা এগ্রো, মোস্তফা মেটালস, মামুন এগ্রো ও কৃষি বিড সিড।

এসব কোম্পানিগুলো শেয়ারবাজারের মূল মার্কেটে তালিকাভুক্তর জন্য বিএসইসির কাছে প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) আবেদন করেছিল। তবে বিভিন্ন কারণে কোম্পানিগুলো আইপিওতে আসতে না পেরে কিউআইওর মাধ্যমে স্মলক্যাপ প্লাটফর্মে আবেদন করেছে।

এছাড়া এগ্রো অর্গানিকা, আসিয়া সি ফুড ও বিডি পেইন্টস কিউআইওর মাধ্যমে স্মলক্যাপ প্লাটফর্মে তালিকাভুক্তির জন্য সংশ্লিষ্ট বিধিমালার কিছু বিধি থেকে অব্যাহতি চেয়ে বিএসইসির কাছে আবেদন করেছে। সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, সার্বিক দিক বিবেচনা করে কোম্পানিগুলোকে স্মলক্যাপে তালিকাভুক্তি অনুমোদন দেবে বিএসইসি।

বিএসইসি সূত্রে জানা গেছে, কিউআইওর মাধ্যমে সুব্রা সিস্টেমস শেয়ারবাজার ১ কোটি ২০ লাখ শেয়ার ছেড়ে ১২ কোটি টাকা সংগ্রহ করবে; মাস্টার ফিড অ্যাগ্রোটেক ১ কোটি শেয়ার ছেড়ে ১০ কোটি টাকা; ওরিজা অ্যাগ্রো ১ কোটি শেয়ার ছেড়ে ১০ কোটি টাকা; মোস্তফা মেটাল ইন্ডাস্ট্রিজ ১ কোটি ১০ লাখ শেয়ার ছেড়ে ১১ কোটি টাকা; মামুন এগ্রো ১ কোটি শেয়ার ছেড়ে ১০ কোটি টাকা; কৃষি বিড ফিড ২ কোটি ২০ লাখ শেয়ার ছেড়ে ২২ কোটি টাকা; এগ্রো অর্গানিকা ১ কোটি শেয়ার ছেড়ে ১০ কোটি টাকা; আসিয়া ১ কোটি ৫০ লাখ শেয়ার ছেড়ে ১৫ কোটি টাকা এবং বিডি পেইন্টস ১ কোটি শেয়ার ছেড়ে ১০ কোটি টাকা সংগ্রহ করবে। এসব কোম্পানিগুলোর শেয়ারের অভিহিত মূল্য ১০ টাকা করে।

তথ্য মতে, ২০১৬ সালে তৎকালীন বিএসইসির সাবেক চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. এম খায়রুল হোসেনের নেতৃত্বে স্মলক্যাপ প্লাটফর্ম বা বোর্ড গঠনে এ সংক্রান্ত ‘কোয়ালিফাইড ইনভেস্টর অফার বাই স্মল ক্যাপিটাল কোম্পানিজ রুলস’ প্রণয়ন করা হয়। পরবর্তীতে ২০২০ সালে ২৯ এপ্রিল বিধিমালাটি পুনরায় সংশোধন করে চূড়ান্ত করা হয়। চলতি বছরের ১৫ এপ্রিল ওই বিধিমালার আলোকে স্মলক্যাপ প্লাটফর্মের জন্য প্রথমবারের মতো নতুন কোম্পানি হিসেবে নিয়ালকো অ্যালয়সকে তালিকাভুক্তির অনুমোদন দিয়েছে বর্তমান বিএসইসির চেয়ারম্যান অধ্যাপক ড. শিবলী রুবাইয়াত-উল-ইসলামের নেতৃত্বাধীন কমিশন।

এদিকে, প্রথমবারের মতো দেশের শেয়ারবাজার থেকে অর্থ সংগ্রহকারী স্মলক্যাপ কোম্পানি হিসেবে নিয়ালকো অ্যালয়সের কিউআইওতে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের প্রায় ১৮ গুণ আবেদন জমা পড়েছে। গত ১৬ থেকে ২০ মে পর্যন্ত কোম্পানিটির কিউআইওতে আবেদন গ্রহণ করা হয়। কোম্পানিটির ৭ কোটি ৫০ লাখ টাকার চাহিদার বিপরীতে ১৩৪ কোটি ৩৯ লাখ টাকার আবেদন জমা পড়েছে, যা ১৭.৯১ গুণ বেশি। এর ফলে স্মলক্যাপ কোম্পানির কিউআইওতে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের যথেষ্ট আগ্রহ রয়েছে বলে সংশ্লিষ্টরা মনে করছেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, সম্প্রতি স্মলক্যাপ প্লাটফর্মে তালিকাভুক্তির প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে কর্ণফুলী মাস্টারব্যাচ অ্যান্ড প্লাস্টিক ইন্ডাস্ট্রিজ (কেএমপিআই), এশিয়াটিক এ্যালুমিনিয়াম ও মিরা অ্যাগ্রো ইনপুটস ইস্যু ব্যবস্থাপকের সঙ্গে চুক্তি স্বাক্ষর করেছে। এছাড়া, স্মলক্যাপ প্লাটফর্মে তালিকাভুক্ত হতে আগ্রহ রয়েছে দেশীয় ১২ কোম্পানির। ইতিমধ্যে কোম্পানিগুলো গত ২ মার্চ শেয়ারবাজারের নিয়ন্ত্রণ সংস্থা বিএসইসির সঙ্গে বৈঠক করেছে।

কোম্পানিগুলো হলো, সেবা ডট এক্সওয়াইজেড, চালডাল, যান্ত্রিক, ল্যান্ডনক, হ্যালো টাস্ক, বনডেস্টিন টেকনোলোজিস, ব্রোইনস্টেশন২৩, ই-কুরিয়ার, কাশ ফুড, সেমড, ডিভাইন আইটি ও এনানোভাস আইটি।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম বলেন, ‘কোয়ালিফাইড ইনভেস্টস অফারিংয়ের জন্য বেশ কিছু কোম্পানির আবেদন জমা পড়েছে। আরও কিছু আবেদন জমা পড়ার প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। এছাড়া, কিছু কোম্পানি কিউআইওর কিছু শর্ত থেবে অব্যাহতির জন্য আবেদন করেছে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here