সব শেয়ারের ফ্লোর প্রাইসে সংশোধনী এনেছে ডিএসই

স্টাফ রিপোর্টার : শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত কোম্পানিগুলোর শেয়ার ও ইউনিট দরের ফ্লোর প্রাইস (যে দরের নিচে নামতে পারবে না) গণনায় সংশোধনী এনেছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) কর্তৃপক্ষ। যাতে রবিবার, ২২ মার্চ প্রায় সব কোম্পানির শেয়ার ও ইউনিটের দর সমন্বয় (অ্যাডজাস্টেড) করা হয়েছে। এরফলে কিছু কোম্পানির দর ১০ শতাংশের উপরেও বাড়ার ঘটনা ঘটছে। একই কারনে বেশি সংখ্যক শেয়ারের দাম কমার ঘটনা ঘটেছে।

গত ১৯ মার্চ বিএসইসির এক নির্দেশনায় বলা হয়েছে, ওইদিন থেকে যেকোন কোম্পানির শেয়ার লেনদেন শুরু হবে সর্বশেষ ৫ কার্যদিবসের গড় ক্লোজিং দর দিয়ে। আর ওই দরের নিচে শেয়ারের দাম নামতে পারবে না। তবে দাম বাড়ার সীমা অপরিবর্তিত থাকবে। কিন্তু ডিএসই কর্তৃপক্ষ ওইদিন ওয়েটেড গড় পদ্ধতিতে শেয়ারের সমন্বিত দর নির্ধারণ করে। যেটা আজ স্বাভাবিক গড় হিসাব করে সংশোধনী এনেছে।

ওইদিন ডিএসই সর্বশেষ ৫ কার্যদিবস বিবেচনায় ওয়েটেড গড় পদ্ধতিতে অন্যসব কোম্পানির ন্যায় গ্রামীণফোনের দর নির্ধারন করে। যাতে এ কোম্পানির ওয়েটেড গড় দর দাড়াঁয় ২৩৫.৭০ টাকায়। কিন্তু স্বাভাবিক পদ্ধতিতে গড় দর হয় ২৩৮.৮০ টাকা। আর এটাই আজ সংশোধনী করেছে ডিএসই কর্তৃপক্ষ। যে কারনে আজ সব কোম্পানির শেয়ারে কিছুটা পরিবর্তন এসেছে।

স্বাভাবিক গড় পদ্ধতিতে ১৯ মার্চের আগের ৫ কার্যদিবসের ক্লোজিং দর যোগ করতে হবে। এরপরে ওই দরকে ৫ দিয়ে ভাগ করে গড় দর নির্ণয় করতে হবে। যেমন-গ্রামীনফোনের ১৯ মার্চের আগের ৫ কার্যদিবসের মধ্যে ১১ মার্চ ক্লোজিং দর ছিল ২৫৫.৫০ টাকা। এরপরে ১২ মার্চ ২৪৮ টাকা, ১৫ মার্চ ২৪১.২০ টাকা, ১৬ মার্চ ২২৯.৮০ টাকা ও ১৮ মার্চ ছিল ২১৯.৫০ টাকা। এই ৫ কার্যদিবসের যোগফল দাড়াঁয় ১১৯৪ টাকা। এই দর ৫ দিয়ে ভাগ দিলে গড় দর দাড়াঁয় ২৩৮.৮০ টাকা। এটাই হচ্ছে গ্রামীণফোনের গড় দর।

এদিকে ডিএসই গড় দর গণনায় পরিবর্তন আনায় বাংলাদেশ ইন্ডাস্ট্রিয়াল ফাইন্যান্স কোম্পানির ১০ শতাংশের বেশি শেয়ার দর বাড়ার ঘটনা ঘটেছে। সংশোধনীর ফলে কোম্পানিটির গড় দর ২ টাকা থেকে ৩০ শতাংশ বেড়ে হয়েছে ২.৬০ টাকা। আর এই দরেই শেয়ারটি লেনদেন হচ্ছে।

ডিএসইর এক উর্ধ্বতন কর্মকর্তা একটি অনলাইন নিউজপোর্টালকে বলেন, গত ১৯ মার্চ সব কোম্পানির দর ওয়েটেড পদ্ধতিতে গড় করা হয়েছিল। তবে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) নির্দেশে আজ (২২ মার্চ) স্বাভাবিক গড় করা হয়েছে। যাতে সব কোম্পানির দরে সমন্বয় করতে হয়েছে। এ কারনেই ১০ শতাংশের বেশি দর বৃদ্ধি পাওয়ার ঘটনা ঘটছে।

বিএসইসির নির্দেশনা অনুযায়ি, গ্রামীণফোনের শেয়ারটি সর্বশেষ ৫ কার্যদিবসের গড় নির্ধারিত ২৩৮.৮০ টাকার নিচে নামবে না। তবে এই দরের উপরে উঠা-নামা করতে পারেব।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here