লোকসান কমেছে স্বপ্নের

স্টাফ রিপোর্টার : স্বপ্ন গত কয়েক বছর ধরে লোকসান করে আসলেও গত বছর কোম্পানির অপারেটিং লোকসান কমেছে ২১ শতাংশ। এবং বর্তমানে স্বপ্ন দেশের ১০টি কোম্পানির মধ্যে স্থান দখল করে নিয়েছে বলে জানান এসিআই লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক আরিফ দোলা। সোমবার, ২৩ ডিসেম্বর এসিআই লিমিটেডের ৪৬তম বার্ষিক সাধারণ সভায় (এজিএম) তিনি এ কথা জানান।

আরিফ দোলা বলেন, গত বছর স্বপ্ন শীর্ষ তের এর মধ্যে না থাকলেও এ বছর দশ এর মধ্যে আছে। এবং স্বপ্ন দেশের বেস্ট কমিউনিকেটিভ কোম্পানি হিসেবে অ্যাওয়ার্ড পেয়েছে। কারণ আপনারা ভালো করেই জানেন স্বপ্নের সকল পণ্যের ৪০ শতাংশ সরাসরি ফার্ম থেকে কৃষকের মাধ্যমে আসে। কোম্পানির লোকসান কমতে শুরু করেছে, আমরা আশা করছি খুব শিগগিরই রিটার্ন পাবো। সেই সাথে আমরা যদি কোম্পানিটি সারাদেশে চালু করতে পারি তাহলে কোম্পানি প্রখম তিনের মধ্যে অবস্থান করবে। বর্তমানে কোম্পানিটি মাত্র কয়েকটি শহরে রয়েছে।

তিনি আরও বলেন, আমরা আশা করছি এসিআই হেলথ কেয়ার থেকে আমরা খুব শিগগিরই আয় করবো। বর্তমানে সব কিছুই তৈরি আছে শুধু রপ্তানির জন্য যুক্তরাষ্ট্রের ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশনের (এফডিএ) অনুমোদন পেলেই হবে। এটার পিছনে শুধু একবার বিনিয়োগ করলেই হয়। এবং এরপরে শুধু এর থেকে রিটার্ন আসবে। এবং আমাদের প্রতিটি সাবসিডিয়ারি এক সময় ভালো রিটার্ন দিবে। তবে তার আগে বিনিয়োগ করতে হবে, নাহলে পরে বিনিয়োগ করতে গেলে বিনিয়োগের পরিমাণ বেড়ে যাবে এবং প্রতিদ্বন্দি বেশি থাকবে।

এজিএম এ শেয়ারহোল্ডাররা এসিআই এর সাবসিডিয়ারি কোম্পানিগুলোর বর্তমান অবস্থা, কোম্পানিগুলোর ভবিষ্যৎ এবং স্বপ্নের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি এ কথা বলেন।

শেয়ারহোল্ডারা কোম্পানির লভ্যাংশসহ মোট ৪টি এজেন্ডা অনুমোদন করেন। কোম্পানি গত ৩০ জুন ২০১৯ তারিখে সমাপ্ত হিসাববছরের জন্য ১১৫ শতাংশ লভ্যাংশ ঘোষণা করেছে। এর মধ্যে ১০০ শতাংশ নগদ ও ১৫ শতাংশ বোনাস লভ্যাংশ।

সর্বশেষ অর্থবছরে (২০১৮-২০১৯) কোম্পানিটি এককভাবে শেয়ার প্রতি আয় (Solo EPS) করেছে ১১ টাকা ০১ পয়সা। আগের বছর এককভাবে কোম্পানিটির ইপিএস ছিল ২৬ টাকা ৪১ পয়সা।

অনুষ্ঠানে কোম্পানির চেয়ারম্যানের সভাপতিত্বে আরও উপস্থিত ছিলেন পরিচালক শুসমিতা আনিস, নাজমা দোলা, স্বতন্ত্র পরিচালক আবদুল মুয়ীদ চৌধুরী। এছাড়া কোম্পানি সিএফও, সেক্রেটারী ও শেয়ারহোল্ডারবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here