‘লুব-রেফের আইপিওর চাঁদা গ্রহণ জানুয়ারিতে’

স্টাফ রিপোর্টার : লুব্রিকেন্ট কোম্পানি লুব-রেফ (বাংলাদেশ) লিমিটেডের প্রাথমিক গণপ্রস্তাবের (আইপিও) চাঁদা গ্রহণ হবে আগামী বছরের জানুয়ারিতে। বুক বিল্ডিং শেয়ার ইস্যু করে পুঁজিবাজার থেকে ১৫০ কোটি টাকার মূলধন উত্তোলন করবে প্রতিষ্ঠানটি।

বিষয়টি একটি নিউজপোর্টালকে নিশ্চিত করেছেন কোম্পানির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) মোহাম্মদ ইউসুফ। তিনি বলেন, জানুয়ারিতে আইপিওতে আবেদন গ্রহণের তারিখ নির্ধারণ করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তবে কবে আবেদন গ্রহণ শুরু হবে সেকথা জানাননি তিনি।

সাধারণ বিনিয়োগকারীদের কাছ থেকে অর্থ উত্তোলনের লক্ষ্যে গত ১৮ নভেম্বর পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশনের (বিএসইসি) ৭৪৯তম সভায় কোম্পানিটির আইপিওর অনুমোদন দেওয়া হয়।

এতে বলা হয়, লুব-রেফের ১৫০ কোটি টাকার মূলধন উত্তোলনের জন্য বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে ৪ কোটি ৫২ লাখ ৮৩ হাজার ১৪টি সাধারণ শেয়ার আইপিওর মাধ্যমে ইস্যুর জন্য কোম্পানিটির প্রসপেক্টাস প্রকাশ করার প্রস্তাব অনুমোদন করেছে কমিশন।

এর আগে লুব-রেফের শেয়ারের প্রান্তসীমা নির্ধারণে এ বছরের ১২ অক্টোবর বিকাল ৫টায় শুরু হয়ে টানা ৭২ ঘণ্টার বিডিং শেষ হয় ১৫ অক্টোবর বিকাল ৫টায়। বিডিংয়ে কোম্পানিটির শেয়ারের প্রান্ত-সীমা মূল্য (কাট-অফ প্রাইস) ৩০ টাকায় নির্ধারণ করেছেন বিনিয়োগকারীরা। পাবলিক ইস্যু রুলস অনুসারে, সাধারণ বিনিয়োগকারীরা প্রান্ত-সীমা মূল্যের চেয়ে ১০ শতাংশ কমে অর্থাৎ ২৭ টাকায় কোম্পানিটি শেয়ার পাবেন।

এ বছরের ২০ আগস্ট নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসির কমিশন সভায় লুব-রেফকে বিডিংয়ের অনুমোদন দেওয়া হয়। আইপিওর মাধ্যমে কোম্পানিটি পুঁজিবাজার থেকে ১৫০ কোটি টাকার মূলধন উত্তোলন করে ব্যবসা সম্প্রসারণ, ব্যাংক ঋণ পরিশোধ ও আইপিওর খরচ খাতে ব্যয় করবে।

৩০ জুন ২০১৯ সমাপ্ত হিসাব বছরের নিরীক্ষিত আর্থিক বিবরণী অনুসারে, পুনর্মূল্যায়ন সঞ্চিতিসহ কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি নিট সম্পদ মূল্য (এনএভিপিএস) ৩১ টাকা ৯৩ পয়সা আর পুনর্মূল্যায়ন সঞ্চিতি ছাড়া এনএভিপিএস ২৫ টাকা ৯৬ পয়সা। আলোচ্য সময়ে কোম্পানিটির শেয়ারপ্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ২ টাকা ৮ পয়সা। গত ৫ বছরের আর্থিক বিবরণী অনুযায়ী কোম্পানিটির কর পরবর্তী নিট মুনাফার ভারিত গড় হারে ইপিএস ২ টাকা ২৩ পয়সা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here