লাভেলো আইসক্রিমের ওপর আস্থা হারাচ্ছেন বিনিয়োগকারীরা

মোহাম্মদ তারেকুজ্জামান : পুঁজিবাজারের তালিকাভূক্ত কোম্পানি তৌফিকা ফুডস অ্যান্ড লাভেলো আইসক্রিম পিএলসির ওপর  আস্থা হারাচ্ছেন বিনিয়োগকারী। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) সূত্রে জানা যায়, ডিএসইতে বিদায়ী সপ্তাহের চতুর্থ কার্যদিবসে অর্থাৎ বুধবার, ০৫ জানুয়ারি কোম্পানিটির ক্লোজিং প্রাইজ ছিল ৪৭ দশমিক ৮০ টাকা। আর একই সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস বৃহস্পতিবার, ০৬ জানুয়ারি কোম্পানিটির ক্লোজিং প্রাইজ দাঁড়ায় ৪৩ দশমিক ৬০ টাকা। অর্থাৎ একদিনের ব্যবধানে কোম্পানিটির ৪ দশমিক ২০ টাকা বা ৮ দশমিক ৭৮ শতাংশ কমেছে।

কোম্পানিটির প্রতি বিনিয়োগকারীদের এধরনের অনাগ্রহ মোটেই ভালো লক্ষণ নয় বলে প্রতিয়মান হয়। এদিকে দীর্ঘ মেয়াদে কোম্পানিটির ওপর আস্থা রাখতে পাচ্ছেন না প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা।

ডিএসই সূত্রে জানা যায়, গত ৩০ জুন ২০২০ সমাপ্ত বছরে কোম্পানিটিতে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগ ছিল ১৪ দশমিক ১১ শতাংশ। আর ৩১ অক্টোবর ২০২১ সমাপ্ত বছরে কোম্পানিটিতে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগ দাঁড়ায় ৬ দশমিক ০৫ শতাংশ। অর্থাৎ এক বছরের কিছু বেশি সময় ব্যবধানে কোম্পানিটিতে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীর বিনিয়োগ কমে গেছে ৮ দশমিক ০৬ শতাংশ। সবচেয়ে অবাক করা বিষয় হচ্ছে, গত ৩০ নভেম্বর ২০২১ সমাপ্ত বছরে কোম্পানিটিতে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ দাঁড়িয়েছে ৪ দশমিক ৯৩ শতাংশ। অর্থাৎ মাত্র এক মাসের ব্যবধানে কোম্পানিটি থেকে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগ কমেছে ১ দশমিক ১২ শতাংশ।

সাধারণত প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীরা যেকোন কোম্পানিতে জেনে, বুঝেই বিনিয়োগ করে থাকে। প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের এভাবে স্বল্প সময়ের মধ্যে কোম্পানিটি থেকে বিনিয়োগ উঠিয়ে নেয়ার মানেই হচ্ছে কোম্পানিটির প্রতি আস্থা রাখতে পাচ্ছেন না তারা। যা কোম্পানিটির ভবিষ্যত ভালোর দিকে যাচ্ছে না বলেই প্রতিয়মান হয়।

এদিকে কোম্পানিটির নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদন অনুযায়ী ৩০ জুন ২০২১ সমাপ্ত বছরে শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১ দশমিক ৪১ টাকা। অর্থাৎ নিরীক্ষিত এই ইপিএস অনুযায়ী গত বৃহস্পতিবার ০৬ জানুয়ারি কোম্পানিটির বিদায়ী সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস পিই রেশিও ছিল ৫৯ দশমিক ৭৩। অর্থাৎ যেকোন কোম্পানির পিই রেশিও ৪০ এর ওপর হলেই সেই কোম্পানিতে বিনিয়োগ বিপদজনক। সে দিক থেকে চিন্তা করলেও কোম্পানিটিতে বিনিয়োগ করা বিপদজনক। বর্তমান পরিস্থিতিতে কোম্পানিটিতে কেউ বিনিয়োগ করলে সেই বিনিয়োগ উঠিয়ে নিতে নিরীক্ষিত পিই রেশিও অনুযায়ী ৫৯ দশমিক ৭৩ বছর লেগে যাবে।

কোম্পানিটির সচিব এ.কে.এম জাকারিয়া হোসেন স্টক টাইমস কে বলেন, কোম্পানির শেয়ারপ্রতি আয় যা হয়েছে নিরীক্ষিত আর্থিক প্রতিবেদনে তাই উল্লেখ করা হয়েছে। এখানে আমাদের কোন হাত নেই। আর কোন বিনিয়োগকারী যদি বিনিয়োগ উঠিয়ে নেয় সেখানে আমাদের কিছু করার নেই।

উল্লেখ্য, তৌফিকা ফুডস অ্যান্ড লাভেলো আইসক্রিম পিএলসিতে ৩০ নভেম্বর ২০২১ তারিখে স্পন্সর ডিরেক্টরদের বিনিয়োগ রয়েছে ৫৮ দশমিক ২৪ শতাংশ, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের ৪ দশমিক ৯৩ শতাংশ এবং সাধারণ বিনিয়োগকারীদের শেয়ার রয়েছে ৩৬ দশমিক ৮৩ শতাংশ। প্রতিষ্ঠানটিতে কোন বিদেশি বিনিয়োগ নেই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here