রোমানিয়ার বাজারে সাড়া ফেলেছে ওয়ালটন ব্র্যান্ড টিভি

ওয়ালটনের টেলিভিশন রপ্তানির সিংহভাগ যাচ্ছে ইউরোপে। আর ইউরোপের দেশ রোমানিয়ায় ক্রেতাদের মধ্যে ব্যাপক সাড়া ফেলেছে বাংলাদেশে তৈরি ওয়ালটন ব্র্যান্ডের টিভি। টেকসই পণ্য, উচ্চ গুণগতমান, সাশ্রয়ী মূল্য, সর্বাধুনিক প্রযুক্তি ও ডিজাইন এবং বাজার প্রতিযোগি সক্ষমতার কারণে ইউরোপের দেশটিতে অন্যান্য গ্লোবাল ব্র্যান্ডের চেয়ে এগিয়ে রয়েছে ওয়ালটন টিভি।

জানা গেছে, ইউরোপিয়ান ডিজাইন ও স্ট্যান্ডার্ডে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির টিভি তৈরি করছে বাংলাদেশি মাল্টিন্যাশনাল ইলেকট্রনিক্স ব্র্যান্ড ওয়ালটন। নিজস্ব কারখানায় তৈরি ওয়ালটন টিভি রপ্তানি হচ্ছে ইউরোপের জার্মানি, অস্ট্রিয়া, ডেনমার্ক, স্লোভাকিয়ায়, স্পেন, গ্রিস, আয়ারল্যান্ড, পোল্যান্ড, ক্রোয়েশিয়ার মতো উন্নত দেশে। আগে ওইএম (ওরিজিনাল ইক্যুইপমেন্ট ম্যানুফ্যাকচারার) পদ্ধতির আওতায় ইউরোপে টিভি রপ্তানি হলেও রোমানিয়ায় চলতি বছরের এপ্রিলে ওয়ালটন ব্র্যান্ড নামেই টিভি রপ্তানি শুরু হয়েছে।

রোমানিয়া বাজারের দায়িত্বপ্রাপ্ত ওয়ালটনের ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস ইউনিটের ভাইস-প্রেসিডেন্ট সাঈদ আল ইমরান জানান, বছরে ১.৫ মিলিয়ন টিভির বাজার রয়েছে রোমানিয়ায়। যা কিনা খুবই প্রতিযোগিতামূলক। রোমানিয়ার খ্যাতনামা কনজ্যুমার ইলেট্রনিক্স পণ্য বিপণনকারী প্রতিষ্ঠান ‘কেটিএন টেকনোলজি’ দেশটিতে ওয়ালটন ব্র্যান্ড টিভির পরিবেশক নিযুক্ত হয়েছে। তারা বড় বড় চেইন ও সুপার শপের পাশাপাশি রিটেইল কনজ্যুমার ইলেট্রনিক্স শোরুমগুলোতে ওয়ালটন ব্র্যান্ড টিভি বাজারজাত করছে। প্রচুর লিফলেট বিতরণের পাশাপাশি গুরুত্বপূর্ণ স্থানগুলোতে ব্যানার ও বিলবোর্ডের স্থাপনের মাধ্যমে ব্যাপক প্রচারণা চালাচ্ছে। ফলে অতি অল্প সময়ের মধ্যে ওয়ালটন টিভি রোমানিয়ান ক্রেতাদের মনোযোগ আকর্ষণ করতে সক্ষম হয়েছে। উন্নত পিকচার কোয়ালিটি, উচ্চ গুণগতমান, সাশ্রয়ী দাম, ইউরোপিয়ান স্ট্যান্ডার্ড ডিজাইন ও ফিচারের জন্য ওয়ালটন টিভির প্রতি রোমানিয়ানদের আস্থা বাড়ছে অতি দ্রুত।

তিনি জানান, ২০২১ সালে রোমানিয়ায় ১ লাখ ইউনিট ওয়ালটন টিভি বাজারজাত করার পরিকল্পনা নিয়েছে পরিবেশক কেটিএন টেকনোলজি। পণ্যের গুণগত উচ্চমান এবং তাদের দীর্ঘদিনের ব্যবসায়িক অভিজ্ঞতাকে কাজে লাগিয়ে রোমানিয়ার বাজারে ওয়ালটন ব্র্যান্ড সফল হবে বলে তিনি আশাবাদী।

ওয়ালটন টিভির চিফ বিজেনস অফিসার (সিবিও) সিইও প্রকৌশলী মোস্তফা নাহিদ হোসেন বলেন, দুবছর আগে ওইএম পদ্ধতিতে ইউরোপের বাজারে টিভি রপ্তানি শুরু হয়। ওয়ালটন টিভির পিকচার ও মান খুব উন্নত হওয়ায় অতি অল্প সময়ের মধ্যে ইউরোপের প্রায় ১১ টি দেশে ওয়ালটন টিভির রপ্তানি বাণিজ্য সম্প্রসারণ হয়েছে। ইউরোপে ২০২০ সালে আগের বছরের চেয়ে ১০ গুণ বেশি টিভি রপ্তানি করেছে ওয়ালটন। আর ২০২০ সালের মোট রপ্তানি এ বছরের প্রথম পাঁচ মাসে (জানুয়ারি থেকে মে) ছাড়িয়ে গেছে। ওইএম পদ্ধতির পাশাপাশি এ বছর রোমানিয়ায় ওয়ালটন ব্র্যান্ডের নামেই টিভি রপ্তানি হচ্ছে। ইউরোপের অন্যান্য দেশগুলোর মতো রোমানিয়ার বাজারেও মাত্র কয়েক মাসের মধ্যে ব্যাপক সুনাম অর্জন করেছে ওয়ালটন ব্র্যান্ড টিভি।

তার মতে, রোমানিয়ার মাধ্যমে ইউরোপের বাজারে ওয়ালটনের শুভ সুচনা হয়েছে। ইউরোপের অন্যান্য দেশেও ওয়ালটন ব্র্যান্ড পণ্য প্রবেশের পথ সুগম হয়েছে। চলতি বছর ইউরোপের ২১টিরও বেশি দেশে টিভি রপ্তানি সম্প্রসারণের কাজ এগিয়ে চলছে।
সূত্রমতে, ৩৫ টিরও বেশি দেশে, শতাধিক বিজনেস পার্টনারের মাধ্যমে ‘মেড ইন বাংলাদেশ’ লেবেলযুক্ত টিভি রপ্তানি করছে ওয়ালটন। ওয়ালটন টিভির মোট রপ্তানির ৩৪ শতাংশ ডেনমার্কে, ১৮ শতাংশ জার্মানিতে, ২২ শতাংশ গ্রিসে, ১৫ শতাংশ ক্রোয়েশিয়া ও আয়ারল্যান্ডে, ৬ শতাংশ পোল্যান্ডে এবং ৫ শতাংশ আফ্রিকা ও অন্যান্য দেশে হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here