মার্জিন ঋণের বর্তমান সীমা ৮ হাজার পয়েন্ট পর্যন্ত

করোনা ভাইরাস অতিমারির প্রেক্ষিতে পুঁজিবাজারে নীতিসমর্থন বাড়াচ্ছে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। মার্জিন ঋণে (Margin Loan) বিদ্যমান সর্বোচ্চ সীমা/হার (১:০.৮) ডিএসইএক্স সূচকের ৮ হাজার পয়েন্ট পর্যন্ত বহাল থাকবে। অর্থাৎ ডিএসইএক্স ৮ হাজার পয়েন্টের মধ্যে থাকলে গ্রাহকের ১০০ টাকা মূলধন/তহবিলের বিপরীতে তাকে ৮০ টাকা পর্যন্ত ঋণ দিতে পারবে মার্চেন্ট ব্যাংক ও ব্রোকারহাউজগুলো।

বৃহস্পতিবার, ১৩ আগস্ট বিএসইসি এ সংক্রান্ত একটি নির্দেশনা জারি করেছে।

এর আগে গত ৪ এপ্রিল, ২০২১ তারিখে জারি করা নির্দেশনায় বলা হয়েছিল, ডিএসইএক্স ৭ হাজার পর্যন্ত মার্জিন ঋণে ১:০.৮ অনুপাত বহাল থাকবে। সূচকটি ৭ হাজার পয়েন্ট অতিক্রম করলে ঋণের অনুপাত কমে হবে ১:০.৫।

দেশে করোনা পরিস্থিতির উন্নতি না হওয়ায় মার্জিন ঋণের সুবিধা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে। নতুন সীমা অনুসারে, ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান মূল্যসূচক ডিএসইএক্স ৮০০১ পয়েন্ট বা তার বেশি হলে মার্জিন ঋণের হার কমে ১:০.৫ হবে। বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি) সূত্রে এই তথ্য জানা গেছে।

বিএসইসির নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মোহাম্মদ রেজাউল করিম অর্থসূচককে বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেছেন, বিনিয়োগকারী ও বাজারের স্বার্থে মার্জিন ঋণের সীমা বাড়ানোর এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here