স্টাফ রিপোর্টার : বাতাসে ভাসছে বসন্তের আগমনী বার্তা। ঝরে পড়ছে গাছের ধূসর পাতা। গজে উঠছে কচি পাতা গাছের শাখা-প্রশাখায়। আনমনে ডেকে চলছে কোকিলের কুহু কুহু সুমধুর ধ্বনি। ফুলের বাগানে  রঙের সমাহার। হিমেল দিন পার করে প্রকৃতিতে ফুটে উঠেছে বর্ণিল সাজে। এ যেন সুবাসিত এক ঋতু। রূপ, রস, লাবণ্য ছড়িয়ে পড়ছে মাতাল এক সমীরণে। প্রকৃতিতে যেন স্বর্গিয় প্রশান্তি।

ঋতুরাজ বসন্তের আগমনী দিন আজ বুধবার। সারা বাংলার প্রকৃতিতে, ‘বসন্ত বাতাসে… সই গো/বসন্ত বাতাসে/বন্ধুর বাড়ির ফুলের গন্ধ আমার বাড়ি আসে।’

প্রভাতের নবীন ঊষা বাংলার প্রকৃতিতে নিয়ে এসেছে ঋতুরাজের দোলা। খুলে গেছে দখিনা দুয়ার। মানব-মানবীর হৃদয়ের বেদি আর প্রজাপতির রঙিন পাখা, মৌমাছির গুনগুনানি, বৃক্ষ-লতা-গুল্ম, ফুলে-ফলে, পত্র-পল্লবে, শাখায় শাখায়, ঘাসে ঘাসে, নদীর কিনারে, কুঞ্জ-বীথিকা আর অরণ্য-পর্বতে নবযৌবনের বান ডেকেছে।

‘এসো মিলি প্রাণের উৎসবে’ প্রতিপাদ্যে আজ রাজধানীতে বসন্ত উৎসবের আয়োজন করেছে জাতীয় বসন্ত উদ্‌যাপন পরিষদ। যার মূল আয়োজনটি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের বকুলতলায়। এদিকে বেঙ্গল ফাউন্ডেশনের আয়োজনে গতকাল মঙ্গলবারই শুরু হয়েছে বসন্তকে স্বাগত কার্যক্রম।

প্রকৃতির এই রূপতরঙ্গে দুলে ওঠে কবিগুরু গেয়েছেন- ‘ওরে ভাই, ফাগুন লেগেছে বনে বনে।’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here