বিদেশি বিনিয়োগের নিবন্ধন বেড়েছে, কমেছে প্রকৃত বিনিয়োগ

২০১৭ সালে দেশে বিদেশি বিনিয়োগের নিবন্ধন ব্যাপকভাবে বাড়লেও প্রকৃত বিনিয়োগ আগের বছরের চেয়ে কমেছে। বাংলাদেশ ব্যাংকের সর্বশেষ প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা যায়।

বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০১৭ সালে দেশে মোট ২৬৮ কোটি ডলারের বিদেশি বিনিয়োগ এসেছে। বিপরীতে বাংলাদেশ থেকে বিদেশিরা ৫৩ কোটি ডলারের বিনিয়োগ তুলে নিয়েছেন। এতে প্রকৃত বিনিয়োগ দাঁড়িয়েছে ২১৫ কোটি ডলার। এ অর্থের মধ্যে ২৫ শতাংশ বা প্রায় ৫৪ কোটি ডলার নতুন বিনিয়োগ বা মূলধন হিসেবে এসেছে। কর্মরত কোম্পানিগুলো তাদের আয় থেকে পুনর্বিনিয়োগ করেছে ১২৮ কোটি ডলার, যা মোট বিনিয়োগের ৬০ শতাংশ। বাকি ৩৩ কোটি ডলার বা ১৫ শতাংশ এসেছে আন্তকোম্পানি ঋণ হিসেবে।

প্রতিবেদনের তথ্য অনুযায়ী, দেশে বিদেশি বিনিয়োগের ধারা ঊর্ধ্বমুখী ছিল। গত সাত বছরের মধ্যে ২০১৪ সালে নির্বাচনকেন্দ্রিক সহিংসতা কারনে বিদেশি বিনিয়োগ সামান্য কিছুটা কমে যায়। সে তুলনায় ২০১৭ সালে পরিস্থিতি ছিল বিনিয়োগের উপযোগী।

বিনিয়োগ উন্নয়ন কর্তৃপক্ষের (বিডা) তথ্য অনুযায়ী, গত দুই বছরের হিসাবে দেশে বছরে হাজার কোটি ডলারের বেশি বিদেশি বিনিয়োগ নিবন্ধিত হয়েছে। ২০১৬ সালে নিবন্ধিত হয় ১ হাজার ১৩২ কোটি ডলারের বিদেশি বিনিয়োগ এবং ২০১৭ সালে তা দাঁড়ায় ১ হাজার ৪৬ কোটি ডলার। ২০১৪ ও ২০১৫ সালে এ পরিমাণ অনেক কম ছিল। ওই দুই বছরে দেশে মাত্র ১৫০ কোটি ডলারের বিদেশি বিনিয়োগ নিবন্ধিত হয়েছিল।

বিদেশি একটি প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশে বিনিয়োগ করতে চাইলে তাকে প্রকল্পের নিবন্ধন করাতে হয়। এটি প্রকৃত বিনিয়োগ নয়। প্রতিষ্ঠানটি যখন অর্থ এনে কারখানা বা প্রতিষ্ঠানের কাজ শুরু করে, সেটিই প্রকৃত বিনিয়োগ হিসেবে গণ্য করা হয়।

সূত্র:প্রথম আলো।

 

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here