বিদায়ী সপ্তাহে শেয়ারবাজারে ফিরেছে ৩ হাজার কোটি টাকা

সাপ্তাহিকভাবে আগের সপ্তাহের মতো বিদায়ী সপ্তাহও উত্থান হয়েছে শেয়ারবাজারে। সপ্তাহটিতে শেয়ারবাজারের একটি বাদে সব সূচক বেড়েছে। একই সাথে বেশিরভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দর এবং টাকার পরিমাণে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) লেনদেন বেড়েছে আর চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) কমেছে। লেনদেনের সাথে সপ্তাহটিতে ডিএসইতে বাজার মূলধন তিন হাজার কোটি টাকা ফিরেছে।

জানা গেছে, সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস লেনদেন শুরুর আগে ডিএসইতে বাজার মূলধন ছিল ৫ লাখ ১৪ হাজার ২৮২ কোটি ১৩ লাখ ৪ হাজার টাকায়। আর সপ্তাহের শেষ কার্যদিবস লেনদেন শেষে বাজার মূলধন দাঁড়ায় ৫ লাখ ১৭ হাজার ১৮২ কোটি ১৮ লাখ ১ হাজার টাকায়। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে বিনিয়োগকারীরা ২ হাজার ৯০০ কোটি ৪ লাখ ৯৭ হাজার টাকা বাজার মূলধন ফিরেছে।

বিদায়ী সপ্তাহে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) ৬ হাজার ৪১০ কোটি ৭০ লাখ ৭৩ হাজার ৩৮৮ টাকার লেনদেন হয়েছে। আর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ৫ হাজার ৬২৪ কোটি ৬৬ লাখ ২৫ হাজার ৬৩৩ টাকার। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইতে লেনদেন ৭৮৬ কোটি ৪ লাখ ৪৭ হাজার ৭৫৫ টাকা বা ১৪ শতাংশ বেড়েছে।

সপ্তাহের ব্যবধানে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স ৬২.২৯ পয়েন্ট বা ১.০১ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৬ হাজার ২১২.৭৭ পয়েন্টে। অপর সূচকগুলোর মধ্যে শরিয়াহ সূচক ২৬.৭৯ পয়েন্ট বা ২.০৪ শতাংশ এবং ডিএসই-৩০ সূচক ৩৯.৮৩ পয়েন্ট বা ১.৮০ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়ে যথাক্রমে ১ হাজার ৩৪১.৫৫ পয়েন্ট এবং ২ হাজার ২৪৮.২১ পয়েন্টে।

বিদায়ী সপ্তাহে ডিএসইতে মোট ৩৭৬টি প্রতিষ্ঠান শেয়ার ও ইউনিট লেনদেনে অংশ নিয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে দর বেড়েছে ২৩০টির বা ৬১.১৭ শতাংশের, কমেছে ১৩৬টির বা ৩৬.১৭ শতাংশের এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১০টির বা ২.৬৬ শতাংশের শেয়ার ও ইউনিট দর।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) বিদায়ী সপ্তাহে টাকার পরিমাণে লেনদেন হয়েছে ২৮৬ কোটি ৩ লাখ ৭৩ হাজার ৯৪০ টাকার। আর আগের সপ্তাহে লেনদেন হয়েছিল ৩৮৬ কোটি ১১ লাখ ৮৬ হাজার ২৩৪ টাকার। অর্থাৎ সপ্তাহের ব্যবধানে সিএসইতে লেনদেন ১০০ কোটি ৮ লাখ ১২ হাজার ২৯৪ টাকা বা ২৬ শতাংশ কম হয়েছে।

সপ্তাহটিতে সিএসইর সার্বিক সূচক সিএএসপিআই ২০৬.৯১ পয়েন্ট বা ১.১৬ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে ১৮ হাজার ১.৯৫ পয়েন্টে। সিএসইর অপর সূচকগুলোর মধ্যে সিএসসিএক্স ১১৫.৫৯ পয়েন্ট বা ১.০৮ শতাংশ, সিএসই-৫০ সূচক ১৮.১১ পয়েন্ট বা ১.৪১ শতাংশ এবং সিএসআই ২৯.৮২ পয়েন্ট বা ২.৭৩ শতাংশ বেড়ে দাঁড়িয়েছে যথাক্রমে ১০ হাজার ৮১০.৮১ পয়েন্ট, ১ হাজার ৩০৬.০৭ পয়েন্টে এবং সিএসআই ১ হাজর ১২১.৬৭ পয়েন্টে। তবে সিএসই-৩০ সূচক ৯.৩৪ পয়েন্ট বা ০.০৬ শতাংশ কমে দাঁড়িয়েছে ১৩ হাজার ৩৭৩.৪৩ পয়েন্টে।

সপ্তাহজুড়ে সিএসইতে ৩৩৭টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট লেনদেনে অংশ নিয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে ২১৩টির বা ৬৩.২০ শতাংশের দর বেড়েছে, ১১২টির বা ৩৩.২৪ শতাংশের কমেছে এবং ১২টির বা ৩.৫৬ শতাংশের দর অপরিবর্তিত রয়েছে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here