বাংলাদেশের পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ করতে চায় অস্ট্রেলিয়া

বাংলাদেশের পুঁজিবাজারে বিনিয়োগ করতে চায় অস্ট্রেলিয়া। দুই দেশের মধ্যে যে ট্রেড অ্যান্ড ইনভেস্টমেন্ট ফ্রেমওয়ার্ক অ্যারেঞ্জমেন্ট (টিফা) রয়েছে এর আওতায় দেশটি এ খাতে বিনিয়োগে আগ্রহ প্রকাশ করেছে। তবে বাংলাদেশ অস্ট্রেলিয়ার কাছে আরও কয়েকটি খাতে বিনিয়োগ চাইছে। এর মধ্যে অগ্রাধিকার পাচ্ছে কৃষি, জ্বালানি, আইসিটি ও শিক্ষা খাত।

আগামীকাল (মঙ্গলবার) টিফার আওতায় যে যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপ রয়েছে তার প্রথম সভায় এসব ইস্যুতে আলোচনা হবে বলে জানা গেছে।

অস্ট্রেলিয়ার রাজধানী ক্যানাবেরায় দ্বিপক্ষীয় বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সংক্রান্ত (টিফা) যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপের প্রথম সভাটি অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে আগামীকাল। ওই সভায় বাংলাদেশের পক্ষে বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র সচিব তপন কান্তি ঘোষ ও অস্ট্রেলিয়ার পক্ষে নেতৃত্ব দেবেন দেশটির পররাষ্ট্র ও বাণিজ্য বিভাগের অ্যাসোসিয়েট সেক্রেটারি টিন ইয়েন্ড।

বাণিজ্য সচিব তপন কান্তি ঘোষ জানান, অস্ট্রেলিয়ার কাছে আমরা কৃষি, জ্বালানি, আইসিটি ও শিক্ষা খাতে বিনিয়োগ চাইছি। বিশেষ করে বাংলাদেশের শিক্ষার পাশাপাশি পেশাগত দক্ষতা উন্নয়নে অস্ট্রেলিয়ার সহায়তা চাওয়া হবে। আমাদের দেশে প্রচুর অদক্ষ জনগোষ্ঠী রয়েছে। এদের দক্ষ করে গড়ে তুলতে পারলে করোনা-পরবর্তী বহির্বিশ্বে প্রচুর কর্মসংস্থানের সুযোগ সৃষ্টি হবে।

বাংলাদেশের পুঁজিবাজারে অস্ট্রেলিয়ার আগ্রহের বিষয়ে সিনিয়র সচিব জানান, আমরা যেমন অস্ট্রেলিয়ার কাছে বিনিয়োগ চাইছি, তেমনি তারাও আমাদের পুঁজিবাজারে বিনিয়োগের আগ্রহ প্রকাশ করেছে। এটি পোর্টফোলিও বিনিয়োগ হবে। এখন তারা কী ধরনের পোর্টফোলিও বিনিয়োগ করতে চায় সে সম্পর্কে জেডাব্লিওজি-এর সভায় জানতে পারব আমরা।

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্টরা জানান, গত সেপ্টেম্বরে দুই দেশের মধ্যে টিফা চুক্তি স্বাক্ষরের পর এটিই প্রথম যৌথ ওয়ার্কিং গ্রুপের বৈঠক। স্বাভাবিকভাবে এ বৈঠকে করোনা-পরবর্তী অর্থনৈতিক পুনরুদ্ধারের বিষয়টি গুরুত্ব পাচ্ছে। সে কারণে উভয় দেশই নিজ নিজ দেশের পক্ষে বাণিজ্য ও বিনিয়োগ সম্প্রসারণে কৌশলপত্র উপস্থাপন করবে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here