প্রাইম ব্যাংকের এমডির পদত্যাগ

বুধবার সন্ধ্যায় বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকমকে তিনি বলেন, নতুন একটি আর্থিক প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে তিনি যুক্ত হতে যাচ্ছেন, সে কারণেই গত সোমবার পদত্যাগপত্র দিয়েছেন।

এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, “কোনো সমস্যা হয়নি। গত সেপ্টেম্বরে পরিচালনা পর্ষদের সভায় আমার মেয়াদ আরও তিন বছর বাড়ানোর কথা হয়েছিল। কিন্তু আমি নতুন প্রতিষ্ঠানের সঙ্গে যুক্ত হব বলে স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করেছি।”

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে কিছুদিন হাসপাতালে ছিলেন রাহেল আহমেদ। বর্তমানে চিকিৎসকের পরামর্শে তিনি বাসায় আইসোলেশনে আছেন। এর মধ্যেই সোমবার ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদকে তিনি পদত্যাগপত্র পাঠিয়ে দেন।

কোন আর্থিক প্রতিষ্ঠানে যোগ দিচ্ছেন জানতে চাইলে রাহেল আহমেদ বলেন, “শিগগিরই তা জানতে পারবেন। অসুস্থ না হলে হয়ত আরও আগেই পদত্যাগ করতাম।”

তিনি স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করেছেন। ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের সঙ্গে কোনো সমস্যা হয়নি।… ঝামেলা হওয়ার প্রশ্নই আসে না।”

আপাতত উপ ব্যবস্থাপনা পরিচালক (ডিএমডি) ফয়সাল রহমানকে ভারপ্রাপ্ত এমডির দায়িত্ব দেওয়ার কথা প্রাইম ব্যাংক জানিয়েছে।

২০১৭ সালের ১৪ ডিসেম্বর তিন বছরের জন্য প্রাইম ব্যাংকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক পদে যোগ দেন রাহেল আহমেদ। সে হিসেবে আগামী ১৩ ডিসেম্বর তার মেয়াদ শেষ হওয়ার কথা ছিল। তার কয়েক দিন আগেই তিনি পদত্যাগ করলেন।

প্রাইম ব্যাংকে যোগ দেওয়ার আগে এক দশকের বেশি সময় বহুজাতিক ব্যাংক এএনজেড গ্রিন্ডলেজ ও স্ট্যান্ডার্ড চার্টার্ড ব্যাংকে বিভিন্ন পদে দায়িত্ব পালন করেছেন রাহেল। রিজিওনাল ব্যাংক এমিরেটস এনবিডি ব্যাংকিং গ্রুপ ও ফার্স্ট গালফ ব্যাংকের ইসলামি ব্যাংকিংসহ বিভিন্ন বিভাগে তিনি সাত বছর কাজ করেছেন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here