পুঁজিবাজারের লেনদেন সকাল ১০টা থেকে বেলা আড়াইটা

ঈদুর আজহার আগে পুঁজিবাজারে লেনদেন হবে আগের নিয়মে বেলা আড়াইটা পর্যন্ত। খোলা থাকবে রোববারও। লকডাউনের দ্বিতীয় পর্যায়ে ৮ জুলাই থেকে ১৪ জুলাই পর্যন্ত যে বিধিনিষেধ দিয়েছিল, তার পরিপ্রেক্ষিতে বাংলাদেশ ব্যাংক ব্যাংকিং কার্যক্রমের সময়সীমা বাড়ালেও রোববার সাপ্তাহিক ছুটির তালিকায় রেখেছিল। ফলে রোববার বন্ধ ছিল পুঁজিবাজারের লেনদেন।

পবিত্র ঈদের আগে বিধিনিষেধ শিথিল করায় মঙ্গলবার বাংলাদেশ ব্যাংক নতুন নির্দেশনা জারি করেছে। নতুন নির্দেশনায় রোববারও ব্যাংক খোলা থাকবে। ফলে ১৫ জুলাই বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই রোববার, ১৯ জুলাই সোমবার ব্যাংকের লেনদেন চলবে সকাল ১০টা থেকে বেলা ৪টা পর্যন্ত।বিএসইসির কমিশনার শেখ শামসুদ্দিন আহমেদ এ বিষয়ে সংবাদ মাধ্যমকে বলেন, ব্যাংকের লেনদেনের সঙ্গে সমন্বয় করে পুঁজিবাজারের লেনদেনের সময় নির্ধারণ হয়ে আসছে। এবারও সেভাবেই হবে।

তিনি বলেন, এ ক্ষেত্রে পুঁজিবাজারের লেনদেন চলবে বেলা আড়াইটা পর্যন্ত। রোববারও খোলা থাকবে পুঁজিবাজার।সরকার করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে আগামী বৃহস্পতিবার থেকে শাটডাউন সংক্রান্ত বিধিনিষেধ শিথিল করে মঙ্গলবার প্রজ্ঞাপন জারি করে। চলমান দ্বিতীয় দফার শাটডাউন শেষ হচ্ছে বুধবার। ঈদুল আজহা সামনে রেখে ১৫ থেকে ২২ জুলাই পর্যন্ত শিথিলতা থাকছে সব ধরনের বিধিনিষেধে।

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে লকডাউন নিয়ে ব্যাংকের সিদ্ধান্তের পরপরই ব্যাংক লেনদেনের সঙ্গে সমন্বয় করে পুঁজিবাজারের লেনদেনের নতুন সময়সূচি জানিয়ে আসছে পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি।

বিএসইসি চেয়ারম্যান শিবলী রুবাইয়াত উল ইসলাম লকডাউন বা শাটডাউনে পুঁজিবাজার বন্ধ রাখার পক্ষে নন; বরং ব্যাংকের লেনদেন সময়সূচির সঙ্গে সমন্বয় রেখে পুঁজিবাজার খোলা রাখার কথা তিনি জানিয়ে আসছেন শুরু থেকেই।এর আগে ১ থেকে ৭ জুলাই পর্যন্ত সময়ে শাটডাউনে ব্যাংকের কার্যক্রমের সময়সূচি পরিবর্তন হওয়ার পর পুঁজিবাজারের নতুন লেনদনে সময়সীমা কী হবে, তা দুই দফা পরিবর্তন করে রাত প্রায় ১২টায় তা চূড়ান্ত করা হয়।

চলমান লকডাউনে ব্যাংকের লেনদেন সকাল ১০টা থেকে বেলা ২টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত চলছে। আর পুঁজিবাজারের লেনদেন চলছে ১০টা থেকে ২টা পর্যন্ত, যা বুধবার পর্যন্ত বহাল থাকবে।করোনা পরিস্থিতিতে ৫ এপ্রিল লকডাউন ঘোষণার পর পুঁজিবাজারের লেনদেন চলে দুপুর ১২টা পর্যন্ত। ১২ এপ্রিল পর্যন্ত এভাবেই চলেছে লেনদেন।

পরে সরকার ১৪ এপ্রিল থেকে আবারও ‘সর্বাত্মক লকডাউন’ ঘোষণা করলে তখন ব্যাংকের লেনদেনের সঙ্গে সমন্বয় করে পুঁজিবাজারের লেনদেন সময়সীমা বাড়ানো হয় আধা ঘণ্টা; দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত করা হয় লেনদেন।সর্বশেষ ৬ এপ্রিল থেকে সে সময়সীমা বৃদ্ধি করে বেলা দেড়টা পর্যন্ত করা হয়। শেষে গত ৩০ মে থেকে আবারও পুরো সময় সকাল ১০টা থেকে বেলা ২টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত লেনদেন হয় পুঁজিবাজারে।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here