পুঁজিবাজারের লেনদেন চালু থাকলেও বন্ধ থাকবে প্রি-ওপেনিং সুবিধা

স্টাফ রিপোর্টার : দেশের পুঁজিবাজারে লকডাউনের মধ্যে লেনদেন চালু থাকলেও বন্ধ থাকবে প্রি-ওপেনিং সুবিধা। এতদিন লেনদেন শুরুর আগের ১৫ মিনিট শেয়ার কেনাবেচার প্রস্তাব দেওয়ার সুযোগ ছিলো।

ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জে (ডিএসই) শনিবার, ০৩ এপ্রিল এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানিয়েছে, আজ, ৪ এপ্রিল থেকে সাময়িকভাবে প্রি ওপেনিং হিসেবে পরিচিত সেশনটি বন্ধ থাকবে।

পরিচালনা পর্ষদের জরুরি সভা শেষে শনিবার রাতে ডিএসইর জনসংযোগ ও প্রকাশনা বিভাগের উপমহাব্যবস্থাপক শফিকুর রহমানের স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত প্রি ওপেনিং সেশনে শেয়ার কেনা বা বিক্রির দরপ্রস্তাব বসানো যাবে না। সোমবার, ০৫ এপ্রিল থেকে এক সপ্তাহের লকডাউন শুরুর সরকারি ঘোষণার প্রেক্ষাপটে এ সিদ্ধান্ত জানালো ডিএসই।

বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, পুঁজিবাজারের নিয়ন্ত্রক সংস্থা ‌বিএসইসির বাজার চালু রাখার সিদ্ধান্তকে স্বাগত ও ধন্যবাদ জানিয়েছে ডিএসইর পরিচালনা পর্ষদ৷ ৩ এপ্রিল ডিএসইর পরিচালনা পর্ষদের জরুরি এক সভায় এই সিদ্ধান্তকে স্বাগত ও ধন্যবাদ জানানো হয়৷ একই সভায় চলমান প্রি-ওপেনিং সেশন পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত স্থগিত করা হয়৷ যা আজ থেকে কার্যকর হচ্ছে৷ ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ সকল ট্রেকহোল্ডার ও বিনিয়োগকারীদের স্বাস্থ্যবিধি মেনে ডিজিটাল প্লাটফর্মে লেনদেনের অনুরোধ জানিয়েছে৷

প্রসঙ্গত, ডিএসইতে সকাল ১০টা থেকে লেনদেন চালু হয়ে চলে বেলা আড়াইটা পর্যন্ত। লেনদেন শুরুর আগের ১৫ মিনিটে বিনিয়োগকারীদের দরপ্রস্তাব বসানোর সুযোগ থাকে। এটি প্রি ওপেনিং সেশন। এছাড়া লেনদেন শেষ হওয়ার পরের ১০ মিনিটে পোস্ট ক্লোজিং সেশন রয়েছে। এ সময়ে সমাপনী দরে শেয়ার কেনাবেচা করা যায়। গত বছরের নভেম্বর থেকে এ দুই সেশন চালু করেছে ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ কমিশন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here