কর্মীদের সাথে প্রতারণা সোনার বাংলা ইন্স্যুরেন্সের

২০০৬ সালের শ্রম আইনের ২৩২ ধারা অনুযায়ি, ওয়ার্কার্স প্রফিট পার্টিসিপেশন ফান্ড (ডব্লিউপিপিএফ) গঠন করা এবং তা কর্মীদের মধ্যে বিতরণ করা বাধ্যতামূলক হলেও সোনার বাংলা ইন্স্যুরেন্স কর্তৃপক্ষ তা করেনি বলে জানিয়েছে নিরীক্ষক। এর মাধ্যমে কোম্পানি কর্তৃপক্ষ তাদের কর্মীদেরকে ন্যায্য অধিকার থেকে বঞ্চিত করেছেন।

নিরীক্ষক জানিয়েছে, বীমা কোম্পানিটির সাবসিডিয়ারি সোনার বাংলা ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্টে ৯ কোটি ৪১ লাখ টাকার শেয়ার মানি ডিপোজিট রয়েছে। যা ৬ মাসের মধ্যে পরিশোধিত মূলধনে রুপান্তর না করে ফিন্যান্সিয়াল রিপোর্টিং কাউন্সিলের (এফআরসি) নির্দেশনা অমান্য করা হয়েছে।

এদিকে নন-লাইফ ইন্স্যুরেন্সের ক্ষেত্রে বীমা উন্নয়ন ও নিয়ন্ত্রণ কর্তৃপক্ষের (আইডিআরএ) বিনিয়োগ নীতি পরিপালন করছে না সোনার বাংলা ইন্স্যুরেন্স।

উল্লেখ্য, ২০০৬ সালে শেয়ারবাজারে তালিকাভুক্ত হওয়া সোনার বাংলা ইন্স্যুরেন্সের পরিশোধিত মূলধনের পরিমাণ ৪০ কোটি ৪ লাখ টাকা। এরমধ্যে শেয়ারবাজারের বিভিন্ন শ্রেণীর (উদ্যোক্তা/পরিচালক ব্যতিত) বিনিয়োগকারীদের মালিকানা ৬৩.২২ শতাংশ। কোম্পানিটির শনিবার (১০ জুলাই) শেয়ার দর দাড়িঁয়েছে ৮৬.২০ টাকায়।

সূত্র : বিজনেস আওয়ার

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here