করাচি টেস্টে পাকিস্তানের জয়

স্টাফ রিপোর্টার : করাচি টেস্টের ফল কি হতে যাচ্ছে তা আগেই অনুমান করা গিয়েছিলো। তবে শেষদিন সকালে শ্রীলঙ্কা বিন্দুমাত্র প্রতিরোধও গড়তে পারবে না- এমন বাজে চিন্তা সম্ভবত কেউ করেনি। ম্যাচ জিততে শেষদিন পাকিস্তানের প্রয়োজন ছিল ৩ উইকেট। আর শ্রীলঙ্কার সামনে ২৬৪ রান। সব হিসাবের সমাধান করে দিলেন পাক পেসার নাসিম শাহ।

পঞ্চমদিনের সকালে মাত্র ১৬ বলেই পাকিস্তান তুলে নেয় শ্রীলঙ্কার বাকি তিন উইকেট। আর এই সময়ের মধ্যে শ্রীলঙ্কা তাদের আগের দিনের স্কোরের সঙ্গে কোন রানই যোগ করতে পারেনি! ২১২ রানেই শেষ শ্রীলঙ্কার শেষ ইনিংস। পাকিস্তান করাচি টেস্ট জিতল ২৬৩ রানের বড় ব্যবধানে। সেই সঙ্গে দুই টেস্টের সিরিজ জিতলো ১-০ তে।

টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে এটাই পাকিস্তানের প্রথম কোন জয়। ৪ টেস্টে ১ জয়, ২ হার এবং ১টি ড্র নিয়ে এই টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে পাকিস্তান ৮০ পয়েন্ট নিয়ে চতুর্থস্থানে রয়েছে। চ্যাম্পিয়নশিপে সাত টেস্টের সবকটিতেই জিতে ৩৬০ পয়েন্ট নিয়ে ভারত টেবিলের শীর্ষে।

করাচিতে জয়ের জন্য শ্রীলঙ্কার সামনে টার্গেট ছিল ৪৭৬ রানের। চতুর্থদিন তারা শেষ করে ৭ উইকেটে ২১২ রান নিয়ে। ওপেনার ওসাদা ফার্নান্দো খেলছিলেন ১০২ রান নিয়ে। পঞ্চমদিনের সকালের পেসার নাসিম শাহ প্রথম বলেই উইকেট পান। লেজের সারির ব্যাটসম্যান লাসিথ এম্বুলদেনিয়া ফিরেন শূন্য রানে। সেঞ্চুরিয়ান ফার্নান্দোকে ফেরান স্পিনার ইয়াসির শাহ।

শেষ ব্যাটসম্যান বিশ্ব ফার্নান্দোর উইকেট পান নাসিম শাহ। সেই সঙ্গে ইনিংসে পাঁচ উইকেট তার। বিশ্বের সবচেয়ে কমবয়সী পেসার হিসেবে নাসিম শাহ টেস্ট ইনিংসে পাঁচ উইকেট শিকারের কৃতিত্ব গড়লেন। এই কৃতিত্ব গড়ার দিনে তার বয়স ছিল ১৬ বছর ৩১১ দিন।

এর আগে পাকিস্তান ৩ উইকেটে ৫৫৫ রান তুলে দ্বিতীয় ইনিংস ঘোষণা করে। এই ইনিংসে পাকিস্তানের প্রথম চার ব্যাটসম্যান সেঞ্চুরি পান!

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here