এম.এল ডাইং বাংলাদেশের প্রথম জেনারেশন ডাইং কোম্পানি

স্টাফ রিপোর্টার: বাংলাদেশের প্রথম জেনারেশন ডাইং কোম্পানি এম.এল ডাইংয়ের”  শেয়ার ২১.৮৯ শতাংশ বিদেশি (কোরিয়ান) বিনিয়োগকারীর দখলে যিনি এক সময়ে কোম্পানির ডিরেক্টরও ছিলেন, প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীর কাছে ২১.৮৯ শতাংশ শেয়ার। ৩১.৪০ শতাংশ শেয়ার রয়েছে উদ্যোক্তা ও পরিচালকের কাছে বাকী মাত্র ২১.০৪ শতাংশ সাধারণ বিনিয়োগকারীর কাছে। বিস্তারিত দেখ ুন লিংকটিতে  ক্লিক করে।

কোম্পানির শেয়ার হোল্ডিং প্যার্টন

বিশ্বস্তসূত্রে জানা যায় ডাইং কোম্পানিটির নিরবিচ্ছন্ন কাঁচামাল (ইয়ার্ন ও ক্যামিক্যাল) প্রাপ্তির সুযোগ রয়েছে। বাংলাদেশের প্রথম জেনারেশন ডাইং কোম্পানি হিসেবে মার্কেটে কোম্পানিটির ব্র্যান্ড ভেল্যু ভাল হওয়ায় কোম্পানির ব্যবসাও ভাল।

নাম প্রকাশে অনেচ্ছুক কোম্পানি  ঊর্ধ্বতন এক কর্মকর্তা সূত্রে জানা যায়, কোম্পানিটির আগামীতে ব্যবসা সম্প্রসারণে নতুন স্পিনিং ইউনিট চালু করার চিন্তাভাবনা অাছে।

আইপিও থেকে প্রাপ্ত টাকায় আইপিও প্রকল্প বাস্তবায়ন শুরু হয়েছে। ইতোমধ্যে কোম্পানি মূলধনি যন্ত্রপাতি আমদানি করার জন্য কয়েকটি এল.সি. খুলেছে। আইপিওয়ের মাধ্যমে কোম্পানিটি ২০ কোটি টাকা উত্তোলন করেছে। উত্তোলিত টাকা দিয়ে কোম্পানিটি যন্ত্রপাতি ও কলকব্জা ক্রয় এবং স্থাপন করবে। বাকী টাকা আইপিও বাবদ খরচ করেছে।

পুঁজিবাজারে তালিকাভূক্তির পূর্বে কোম্পানিটির কোনো সম্পদ পূণর্মূল্যায়ন করেনি।  ৩০ জুন ২০১৭ সমাপ্ত হিসাব বছরে পুনর্মূল্যায়ন ছাড়া শেয়ার প্রতি ডিলিইটেড নেট অ্যাসেট ভ্যালু হয়েছে ২২ টাকা ০০ পয়সা। অার তালিকাভূক্তির পর শেয়ার প্রতি নেট অ্যাসেট ভ্যালু হয়েছে ২৫ টাকা ০৬পয়সা। ন্যাভ মোট ৩ টাকা ০৬ পয়সা বেড়েছে।

তালিকাভূক্তির প্রথম বছরে ৩০ জুন,২০১৮ সমাপ্ত অর্থবছরে বিনিয়োগকারীদের জন্য ২০ বোনাস শতাংশ  লভ্যাংশ দিয়েছে কোম্পানিটি। এ সময়ে কোম্পানির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) হয়েছে ১ টাকা ৩৫ পয়সা।

এদিকে সদ্য পুঁজিবাজারে তালিকাভূক্ত কোম্পানিটির প্রোসপেক্টর থেকে জানা যায়, ১০০ শতাংশ এক্সপোর্ট  ওরিয়েন্টেড ডাইংয় কোম্পানি হিসেবে এম.এল ডাইংয় এনবিআর থেকে ভ্যাট সুবিধা ভোগ করে। স্টক মার্কেটে লিস্টেড অন্যান্য কোম্পানি থেকে এম.এল ডাইংয়ের সেলসও টাকার অংকে বেশি। নিস্নে তুলনামূলক চিত্র দেওয়া হলো।

বিস্তারিত দেখ ুন লিংকটিতে  ক্লিক করে। উল্লেখ্য, কোম্পানির ইস্যু ব্যবস্থাপনার দায়িত্বে রয়েছে এনবিএল ক্যাপিটাল অ্যান্ড ইক্যুইটি ম্যানেজমেন্ট ও রূপালী ইনভেস্টমেন্ট লিমিটেড।

আরোও পড়ুন:

‘ইনসাইডার ট্রেডিংয়ের’ কলাকৌশল ও ক্ষুদ্র বিনিয়োগকারীর স্বার্থ

১০ কোম্পানির শেয়ার লক ফ্রি সময়

ডিভিডেন্ড প্রতারণার ধরণ ও কৌশল, বিনিয়োগকারীর স্বার্থ

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here