আসিএবির সভাপতি নির্বাচিত

স্টাফ রিপোর্টার : দি ইন্সটিটিউট অব চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্টস অব বাংলাদেশ (আইসিএবি)’র সভাপতি নির্বাচিত হয়েছেন মুহাম্মদ ফারুক এফসিএ। এছাড়া সিদ্ধার্থ বডুয়া এফসিএ, সাব্বীর আহমেদ এফসিএ এবং মোহাম্মদ ফোরকান উদ্দীন এফসিএ সহ-সভাপতি হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন। নির্বাচিত এই পর্ষদ ২০২০ সালের জন্য আইসিএবি’র পরিচালনা এবং পেশাগত উন্নয়নের জন্য কাজ করবেন।

বুধবার, ১৮ ডিসেম্বর আইসিএবি’র বার্ষিক সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হওয়ার আগে আইসিএবি’র কাউন্সিল সভায় তারা নির্বাচিত হন।

মুহাম্মদ ফারুক বর্তমানে হাওলাদার ইউনুস অ্যান্ড কোং, চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্টস, যেটি গ্রান্টথর্টন ইন্টারন্যাশনাল এর পূর্ণ সদস্য, এর ব্যবস্থাপনা অংশীদার। পাবলিক অ্যাকাউন্ট্যান্টস হিসেবে তিনি ব্যাংক ও আর্থিক প্রতিষ্ঠান নিরীক্ষা এবং দাতাগোষ্ঠীর আর্থিক সহায়তায় পরিচালিত বিভিন্ন প্রকল্পে পরামর্শক-বিশেষজ্ঞ হিসাবে বেশ সুপরিচিত।

তিনি দূতাবাস ও আন্তর্জাতিক সংস্থার নিরীক্ষা, মনিটরিং ও রিভিউ কাজে বহুমাত্রিক অভিজ্ঞতা অর্জন করেন। মুহাম্মদ ফারুক ২০১৩ সাল থেকে আইসিএবি’র কাউন্সিল সদস্য এবং ২০১৩ এর পর্ষদে ভাইস প্রেসিডেন্ট হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। তিনি ২০১৯ সালে আইসিএবি’র পেশাগত উন্নয়ন কমিটি ও রিয়েল এস্টেট কমিটির চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পালন করেন।

সিদ্ধার্থ বডুয়া ১৯৯৫ সালে আইসিএবি’র সহযোগী সদস্য ও ২০০০ সালে ফেলো সদস্যপদ লাভ করেন। তিনি হিসাব বিজ্ঞানে চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় হতে এমকম ডিগ্রি অর্জন করেন। বর্তমানে তিনি এম এ মালিক এন্ড কোং, চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্টস এর অংশীদার।

সাব্বীর আহমেদ ২০০০ সালে আইসিএবি’র সহযোগী সদস্য ও ২০০৫ সালে ফেলো সদস্য হন। বর্তমানে তিনি হুদাভাসি চৌধুরী এন্ড কোং, চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্টস এর অংশীদার। তিনি ২০১৯-২১ মেয়াদে আইসিএবি’র কাউন্সিল সদস্য নির্বাচিত হন। বাংলাদেশে ফিরে আসার পূর্বে ১০ বছরের অধিক সময় তিনি কেপিএমজি, অস্ট্রেলিয়ার বিভিন্ন সিনিয়র পদে কাজ করেন।

মোহাম্মদ ফোরকান উদ্দীন ২০০৫ সালে আইসিএবি’র সহযোগী সদস্য এবং ২০১০ ফেলো সদস্য হন। তিনি বর্তমানে এম এম রহমান এন্ড কোং, চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্টস এর ব্যবস্থাপনা অংশীদার। তিনি ২০১৯-২০২১ মেয়াদের জন্য আইসিএবি’র কাউন্সিল সদস্য নির্বাচিত হন। তিনি বাংলাদেশ ইকোনোমিক অ্যাসোসিয়েশনের আজীবন সদস্য। তিনি বিভিন্ন টেলিভিশন টক শো অনুষ্ঠানে অতি পরিচিত মুখ এবং জাতীয় দৈনিকে প্রবন্ধ লেখক।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here