আজ জিতলেই কিংসের হ্যাটট্রিক

রোবিনহো, খালেদকে ছাড়াই হয়তো সেই চ্যালেঞ্জটা নিতে হবে কিংসকে। লিগের শুরুতে জোনাথন ফার্নান্দেজ, তপু বর্মণকে হারিয়েও অবশ্য পথ হারায়নি দলটি। ষষ্ঠ রাউন্ডে সেই যে শীর্ষে উঠেছে তারা এরপর আর এই অবস্থান থেকে তাদের সরাতে পারেনি কোনো দল। আর একটা জয়েই তাই হ্যাটট্রিক শিরোপা উৎসবও করবে তারা। সেই দিনটি হতে পারে আজই

পেশাদার লিগে টানা তিন শিরোপা জয়ের অভিজ্ঞতা আছে শুধু আবাহনীও। বসুন্ধরা কিংস সেই হ্যাটট্রিকের দোরগোড়ায়। মুন্সীগঞ্জ বীরশ্রেষ্ঠ মতিউর রহমান স্টেডিয়ামে আজ সাইফ স্পোর্টিংকে হারালেই লিগে টানা তৃতীয়বার চ্যাম্পিয়ন হবে দলটি। আবাহনীর হ্যাটট্রিকের তুলনায় বসুন্ধরার এই টানা তিনের মাহাত্ম্য আলাদা।

 

পেশাদার লিগে অভিষেক থেকেই যে ক্লাবটি এই জয়ের তরি ছুটিয়েছে। নতুন একটি দলের টানা তিন শিরোপা জয় বিরল এক ঘটনাই ঘটতে যাচ্ছে এবার।

অবশ্য সাইফ স্পোর্টিংয়ের বিপক্ষে তাদের মাঠে এই ম্যাচটি মোটেও সহজ হবে না কিংসের জন্য। কিছুদিন আগে এই মাঠেই আবাহনীকে হারিয়েছে সাইফ। কিংস কোচ অস্কার ব্রুজোনও ভীষণ সতর্ক, ‘সাইফ দ্বিতীয় লেগে তাদের সেরা ফর্মে আছে। কঠিন এক প্রতিপক্ষের মুখোমুখি হতে যাচ্ছি আমরা। ’ আর এই ম্যাচেই কিনা দলের সেরা তারকা রবসন রোবিনহোর খেলা নিয়ে অনিশ্চয়তায় কিংস। পায়ের পেশিতে হালকা চোট আছে এই ব্রাজিলিয়ানের। যে কারণে আজ সাইফের বিপক্ষে তাঁকে বিশ্রামও দেওয়া হতে পারে। শুধু রোবিনহোই নন, সেন্টারব্যাক খালেদ শাফিও হয়তো খেলবেন না এই ম্যাচে। করোনা পজিটিভ হয়েছিলেন ইরানি তারকা। গত পরশুই নেগেটিভ হয়েছেন। আজকের ম্যাচে তাই তাঁর না খেলার সম্ভাবনাই বেশি। অবশ্য কিংসের স্কোয়াডের গভীরতা বারবার তাদের যেকোনো কঠিন পরিস্থিতি উতরে দিয়েছে। দুজনকেই ঘরের মাঠে আবাহনীর বিপক্ষে পরের ম্যাচে নিশ্চিত করে চায় কিংস। আজ জিতলেও কিংসের শিরোপা উদযাপনের আয়োজন আবাহনীর বিপক্ষে পরের ম্যাচটিকে ঘিরেই। বড় উপলক্ষ উদযাপন বড় ম্যাচেই না মানায় বেশি!

এই মুহূর্তে ১৯ ম্যাচে কিংসের পয়েন্ট ৪৮। সমান ম্যাচে দ্বিতীয় স্থানে থাকা আবাহনীর ৪১ পয়েন্ট। তাই বাকি তিন ম্যাচের একটি জিতলে লিগের অন্য কোনো ম্যাচের ফল নিয়ে ভাবতে হবে না কিংসকে। সাইফের বিপক্ষে আজ সেই তিন পয়েন্টের লক্ষ্যেই নামছে তারা। সাইফও এই ম্যাচে জয় চায়। ৩৪ পয়েন্ট নিয়ে তারা আছে লিগ টেবিলের তৃতীয় স্থানে। সমান পয়েন্ট নিয়ে গোল ব্যবধানে পিছিয়ে চতুর্থ স্থানে শেখ জামাল। জামালের কাছে অবস্থানটা হারাতে চাইবে না সাইফ। সপ্তম স্থানে থেকে প্রথম লেগ শেষ করা দলটি দ্বিতীয় লেগে ধারাবাহিক পারফরম্যান্সে তিনে উঠে এসেছে। এই ৮ ম্যাচে ৬ জয় তাদের, এর মধ্যে আবাহনীর বিপক্ষে ৪-২ গোলের জয়টিও আছে। ব্রুজোন সতর্ক দলটির আক্রমণ সামর্থ্য নিয়ে, ‘ওদের আক্রমণভাগ যথেষ্ট শক্তিশালী। এই লিগে অনেক গোলও করেছে। জিততে হলে আমাদের তাই সেরাটাই দিতে হবে। ’

রোবিনহো, খালেদকে ছাড়াই হয়তো সেই চ্যালেঞ্জটা নিতে হবে কিংসকে। লিগের শুরুতে জোনাথন ফার্নান্দেজ, তপু বর্মণকে হারিয়েও অবশ্য পথ হারায়নি দলটি। ষষ্ঠ রাউন্ডে সেই যে শীর্ষে উঠেছে তারা এরপর আর এই অবস্থান থেকে তাদের সরাতে পারেনি কোনো দল। আর একটা জয়েই তাই হ্যাটট্রিক শিরোপা উৎসবও করবে তারা। সেই দিনটি হতে পারে আজই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here