অর্থনীতিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখতে পুঁজিবাজারে আসছে ডেল্টা হসপিটাল

মোহাম্মদ তারেকুজ্জামান : পুঁজিবাজারে আসছে ডেল্টা হসপিটাল লিমিটেড। পুঁজিবাজার থেকে ৫০ কোটি টাকা উত্তোলন করবে প্রতিষ্ঠানটি। ইতিমধ্যে প্রতিষ্ঠানটির নিলাম বা বিডিংয়ের তারিখ নির্ধারণ হয়েছে। আগামী ২২ মার্চ থেকে ২৫ মার্চ বিকাল ৫টা পর্যন্ত কোম্পানিটির নিলাম অনুষ্ঠিত হবে।

সকল ধরনের চিকিৎসা সেবা দিয়ে থাকে হাসপাতালটি। বিশেষ করে মানুষের ক্যান্সার নিরাময়ে অনন্য ভূমিকা পালন করে চলেছে ডেল্টা হসপিটাল। পুঁজিবাজারে আসলে চিকিৎসা সেবার ব্যপ্তি আরও বৃদ্ধি পাবে। ডেল্টা হসপিটাল সূত্রে এসব তথ্য জানা গেছে।

সম্প্রতি ডেল্টা হসপিটালের চীফ ফিনান্সিয়াল অফিসার (সিএফও) মো. বাকবুল ইসলাম এফসিএমএ স্টক টাইমসকে বলেন, ব্যবসা সম্প্রসারণের লক্ষ্যে আমরা পুঁজিবাজারে আসতে চাচ্ছি। পুঁজিবাজার থেকে প্রাথমিক গণপ্রস্তার (আইপিও) এর মাধ্যমে ৫০ কোটি টাকা উত্তোলন করবে ডেল্টা হসপিটাল লিমিটেড। এরমধ্যে ৩৮ কোটি ৮৯ লাখ টাকার মেশিনারিজ বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে আমদানি করা হবে। ব্যাংক লোন রিপেমেন্ট বাবদ ৮ কোটি ৮৬ লাখ টাকা খরচ করা হবে। এবং আইপিও বাবদ খরচ করা হবে ২ কোটি ২৫ লাখ টাকা।

তিনি বলেন, ডেল্টা হসপিটাল সুনামের সহিত ব্যবসা পরিচালনা করছে। আমরা গত চার বছর ধরে ১২ শতাংশ ক্যাশ ডিভিডেন্ড দিয়ে আসছি। ডেল্টা হসপিটাল পুঁজিবাজারে আসলে শেয়ারহোল্ডাররা উপকৃত হবেন। আমাদের উদ্দেশ্য সৎ। আমরা ব্যবসার পরিধি আরও বৃদ্ধি করবো। তখন কোম্পানির মুনাফাও বৃদ্ধি পাবে। বাংলাদেশে আমাদের মতো রোগীদের ক্যান্সারের চিকিৎসা সেবা আর কেউ দিতে পারেনি এখন পর্যন্ত। ভবিষ্যতে রোগিদের ক্যান্সারের চিকিৎসা সেবা আরও বৃদ্ধি করা হবে। পাশাপাশি পুঁজিবাজারে আসলে দেশের অর্থনীতিতে ডেল্টা হসপিটাল আরও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে বলে আশা করছি।

মো. বাকবুল ইসলাম বলেন, ডেল্টা হসপিটাল লিমিটেড ফ্যামিলি প্রতিষ্ঠান না। এখানকার পরিচালনা পর্ষদে ১৩ জন সদস্য রয়েছেন। প্রত্যেকের আলাদা আলাদা পরিচয় রয়েছে। প্রত্যেকেই হাইলি কোয়ালিফাইড। পরিচালনা পর্ষদে ডাক্তার, ইঞ্জিনিয়ার ও চাটার্ড একাউন্টেন্টসহ উচ্চতর প্রোফাইলের সদস্যরা রয়েছেন। প্রত্যেকেই সততার সহিত কাজ করছেন। আমাদের ম্যানেজমেন্ট অনেক উন্নত। তাই নিশ্চিন্তে শেয়ারহোল্ডাররা ডেল্টা হসপিটালে বিনিয়োগ করতে পারেন।

এদিকে কোম্পানিটির ইস্যু ম্যানেজারের দায়িত্বে রয়েছে প্রাইম ফাইন্যান্স ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড। প্রতিষ্ঠানটির সিএফও আব্দুল মান্নান এফসিএ বলেন, ডেল্টা হসপিটাল লিমিটেড উন্নতমানের প্রতিষ্ঠান। সুনামের সহিত ব্যবসা পরিচালনা করছে প্রতিষ্ঠানটি। এমন কোম্পানির পুঁজিবাজারে আসা উচিত। পুঁজিবাজারে আসলে কোম্পানিটি আরও ভালো কিছু করবে বলে আসা করছি।

এর আগে কোম্পানিটিকে বুক বিল্ডিং পদ্ধতিতে প্রাথমিক গণপ্রস্তাব (আইপিও) প্রক্রিয়ার অংশ হিসেবে নিলামের মাধ্যমে প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের কাছে শেয়ার বিক্রি এবং কাট-অফ প্রাইস নির্ধারণের প্রস্তাব অনুমোদন করেছে বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)।

সর্বশেষ অর্থবছরে কোম্পানিটির শেয়ার প্রতি আয় (ইপিএস) ছিল ২ টাকা ১০ পয়সা। আর ৩০ জুন, ২০১৯ তারিখে শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য (পুনর্মুল্যায়ন সঞ্চিতিসহ) ছিল ৪৫ টাকা ৮৪ পয়সা। আর পুনর্মুল্যায়ন সঞ্চিতি ছাড়া শেয়ার প্রতি নিট সম্পদ মূল্য ছিল ১৬ টাকা ৬২ পয়সা। কোম্পানিটির সর্বশেষ সমাপ্ত অর্থবছর ৩০ জুন ২০১৯ এ অনুমোদিত মূলধন ছিল ১০০ কোটি টাকা এবং পরিশোধিত মূলধন ৩৩ কোটি ২১ লাখ ২৬ হাজার ৯৪০ টাকা।

উল্লেখ্য, কোম্পানিটির ইস্যু ম্যানেজারের দায়িত্বে আছে প্রাইম ফাইন্যান্স ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড। এবং রেজিস্টার টু দ্য ইস্যুর দায়িত্বে রয়েছে আইসিবি ক্যাপিটাল ম্যানেজমেন্ট লিমিটেড।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here