অবসরে যাচ্ছেন আম্পায়ার ইয়ান গোল্ড

স্টাফ রিপোর্টার : খেলোয়াড়দের নাম আমাদের ঠোটস্থ থাকলেও আম্পায়ারদের তেমন একটা চিনি না বললেই চলে। অথচ রোদ-ঠাণ্ডার মধ্যে ঠাঁই দাঁড়িয়ে তারাই ক্রিকেটটা পরিচালনা করেন। ড্যারিল হার্পার, বিলি বাউডেন, আলিম দারদের মতো কিংবদন্তি আম্পায়ারদের সম্পর্কে হয়তো কিছুটা জানা থাকতে পারে! তবে তা নেহায়েত গুটি কয়েক।

অবশ্য ইয়ান গোল্ডও বেশ পরিচিত নাম ক্রিকেটমোদীদের কাছে। তবে আসন্ন বিশ্বকাপের পর আর মাঠে দেখা যাবে না এই ইংলিশ আম্পায়ারকে। ১৩ বছরের আর্ন্তজাতিক আম্পায়ারিং ক্যারিয়ারকে বিদায় জানানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন গোল্ড।

অবসরের সিদ্ধান্ত নেওয়ায় ইয়ান গোল্ডকে শুভেচ্ছা বার্তা জানিয়ে আইসিসি’র ক্রিকেট  মহাব্যবস্থাপক জিওফ অ্যালারদিস বলেন, ‘দীর্ঘদিন ধরে ইয়ান আর্ন্তজাতিক ক্রিকেটে অসাধারণ অবদান রেখে আসছেন। বিশেষ করে গত দশকের শুরু থেকে।’

আম্পায়ারিংকে পেশা হিসেবে বেছে নেওয়ার আগে ইয়ান ইংল্যান্ডের হয়ে ১৮টি একদিনের আর্ন্তজাতিক ম্যাচ খেলেন। তিনি ১৯৮৩ বিশ্বকাপে ইংলিশ স্কোয়াডেও ছিলেন। ২০০২ সালে ইংল্যান্ড অ্যান্ড ওয়েলস ক্রিকেট বোর্ডের (ইসিবি) ফার্স্ট ক্লাস আম্পায়ার হিসেবে অভিষেক হয় তার।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট আম্পায়ার হিসেবে ইয়ান প্রথম ম্যাচ পরিচালনা করেন ২০০৬ সালে। ইংল্যান্ড ও শ্রীলঙ্কার মধ্যকার এক টি-টোয়েন্টি ম্যাচে। এর ক’দিন পরে ওয়ানডে পরিচালনার দায়িত্ব পান। সাদা পোশাকের ক্রিকেটে তার অভিষেক হয় দক্ষিণ আফ্রিকা ও বাংলাদেশের ম্যাচ দিয়ে।

ইংল্যান্ড ও ওয়েলস বিশ্বকাপে ১৬ আম্পায়ারদের একজন ইয়ান। এই নিয়ে চারটি বিশ্বকাপে আম্পায়ার হিসেবে দায়িত্ব পালন করবেন তিনি।

ইয়ান গোল্ড এখন পর্যন্ত ৭৪ টেস্ট পরিচালনা করেছেন। তার মধ্যে টিভি আম্পায়ার ছিলেন ৩৫টি ম্যাচে। এছাড়া তার ঝুড়িতে আছে ১৩৫ ওয়ানডে ও ৩৭টি টি-টোয়েন্টিতে আম্পায়ারিং করার অভিজ্ঞতা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here