অপ্রদর্শিত অর্থ শেয়ারবাজারে বিনিয়োগে লক-ইনের মেয়াদ কমল

স্টাফ রিপোর্টার : ২০২০-২১ অর্থবছরের বাজেটে শেয়ারবাজারে অপ্রদর্শিত অর্থ বিনিয়োগে লক-ইন (বিক্রয়ে নিষেধাজ্ঞা) এর মেয়াদ ৩ বছর থেকে কমিয়ে ১ বছর করে অর্থবিল ২০২০ জাতীয় সংসদে পাশ হয়েছে।

সোমবার, ২৯ জুন দুপুরে স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অর্থমন্ত্রী অর্থবিল পাসের প্রস্তাব করলে তা কণ্ঠভোটে পাস হয়।

এর আগের গত ১১ জুন প্রস্তাবিত বাজেট ঘোষণায় অর্থমন্ত্রী বলেন, কোন কোন করদাতার রিটার্ন দাখিলে অজ্ঞতার কারনে তাদের কিছু অর্জিত সম্পদ প্রদর্শনে ত্রুটি বিচ্যুতি থাকতে পারে। এ অবস্থায় করদাতাদের আয়কর রিটার্নের ত্রুটি সংশোধনের সুযোগ প্রদান এবং অর্থনীতির মূল স্রোতে অর্থ প্রবাহ বৃদ্ধির লক্ষ্যে আমি আয়কর অধ্যাদেশে দুটি ধারা সংযোজনের প্রস্তাব করছি।

প্রথমত, দেশের প্রচলিত আইনে যাই থাকুক না কেনো, আগামি ১ জুলাই থেকে ২০২১ সালের ৩০ জুন পর্যন্ত ব্যক্তিশ্রেণীর করদাতাগন আয়কর রিটার্নে অপ্রদর্শিত জমি, বিল্ডিং, ফ্ল্যাট ও এপার্টমেন্টের প্রতি বর্গমিটারের উপর নির্দিষ্ট হারে এবং নগদ অর্থ, ব্যাংকে গচ্ছিত অর্থ, সঞ্চয়পত্র, শেয়ার, বন্ড বা অন্য কোন সিকিউরিটিজের উপর ১০ শতাংশ কর প্রদান করে আয়কর রিটার্নে প্রদর্শন করলে, আয়কর কর্তৃপক্ষসহ কেউ এ বিষয়ে কোন প্রশ্ন উত্থাপন করতে পারবে না।

দ্বিতীয়ত, শেয়ারবাজারকে গতিশীল করার জন্য ৩ বছর লক-ইনসহ কতিপয় শর্ত সাপেক্ষে আগামি অর্থবছরে ব্যক্তিশ্রেণীর করদাতাগন বিনিয়োগ করলে এবং বিনিয়োগের উপর ১০ শতাংশ কর প্রদান করলে, আয়কর কর্তৃপক্ষসহ কেউ এ বিষয়ে কোন প্রশ্ন উত্থাপন করতে পারবে না।

করোনাভাইরাসে সৃষ্ট মহামারিতে শেয়ারবাজারেও তারল্য সংকট তৈরী হয়েছে। এই পরিস্থিতিতে শেয়ারবাজারে কালোটাকা বিনিয়োগের সুযোগ দেওয়ার দাবি তোলা হয়। অবশেষে আগামী ২০২০-২১ অর্থবছরের বাজেটে কালো টাকা সাদা করার সুযোগ দেওয়া হয়েছে। যা বাস্তবায়নে শেয়ারবাজারে ইতিবাচক প্রভাব পড়বে বলে মনে করছেন বাজার সংশ্লিষ্টরা।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here