শিগগিরই ৭ হাজার ডাক্তার নিয়োগ

স্টাফ রিপোর্টার : শিগগিরই সাত হাজার ডাক্তার নিয়োগ দেয়া হবে। এর মধ্যে ৬০ শতাংশ নারী ডাক্তার রয়েছেন বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক।
রবিবার, ২১ এপ্রিল সচিবালয়ে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সম্মেলন কক্ষে পুষ্টি সপ্তাহ উপলক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।
স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, আমাদের জনবলের সংকট রয়েছে। সম্প্রতি ১৫ হাজার নার্স নিয়োগ দেয়া হয়েছে। এ প্রক্রিয়া চলমান আছে। শিগগিরই আরও সাত হাজার ডাক্তার নিয়োগ দেয়া হবে। এ ডাক্তারদের মধ্যে ৬০ শতাংশ নারী ডাক্তার। এছাড়া এবার মেডিকেলে ভর্তির সংখ্যায় দেখা গেছে ৬১ শতাংশই নারী। হাসপাতালসহ অনেক কর্মক্ষেত্রেই ব্রেস্ট ফিডিং কার্যক্রম যথাযথ নয়। কাজেই ব্রেস্ট ফিডিং কর্নারের প্রয়োজনীয়তা আরও বাড়বে।
সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, খাদ্য ও পুষ্টির বিষয়টি আমরা সরাসরি দেখি না। এটা খাদ্য মন্ত্রণালয় দেখে। আমরা শুধু নির্দেশনা দিয়ে থাকি। আমরা ভেজাল ওষুধ নিয়ন্ত্রণে কাজ করি। আমরা শুধু সচেতন করতে পারি। আমরা তো হোটেলে গিয়ে নিয়ন্ত্রণ করতে পারি না। এটা আমাদের এখতিয়ারে নেই।
ভেজাল নিয়ন্ত্রণের বিষয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, খাদ্য ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়সহ সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ব্যবস্থা নিচ্ছে। কিন্তু ভেজাল নিয়ন্ত্রণে আরও বেশি কাজ করা দরকার। কারণ ভেজাল খাদ্যের কারণে দেশে ক্যান্সার, কিডনি রোগ বাড়ছে। এজন্য আরও বেশি সচেতন করতে হবে।
জাহিদ মালেক বলেন, সমাজে ধনী ও গরিবের ব্যবধান কমিয়ে আনতে সরকার কাজ করছে। পাশাপাশি সুস্থ জাতি তৈরি করতে স্কুল হেলথ কেয়ার নিয়ে জোর দেয়া হচ্ছে। দেশের সাধারণ জনগণ জানে না কিভাবে খাদ্যের পুষ্টিগুণ সম্পূর্ণরূপে অক্ষুণ্ন রাখা যায়। এসব বিষয়ে তাদের সচেতন করাসহ খাদ্য সংগ্রহ থেকে খাদ্যগ্রহণ পর্যন্ত পুষ্টিমান অক্ষুণ্ন রাখতে সঠিক প্রক্রিয়া মেনে চলতে হবে।

এসময় আরও উপস্থিত ছিলেন- স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী ডা. মুরাদ হাসান, স্বাস্থ্যসেবা বিভাগের সচিব মো. আসাদুল ইসলাম, অতিরিক্ত সচিব মো. হাবিবুর রহমান খান, জাতীয় পুষ্টি পরিষদের মহাপরিচালক ডা. মো. শাহ নেওয়াজ প্রমুখ।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here