মার্কেটে গতিশীলতা ও আধুনিকায়নের লক্ষ্যে বিএসইসি

স্টাফ রিপোর্টার: শেয়ারবাজারের ২০১৮ সালে ওভার দ্য কাউন্টার (ওটিসি) মার্কেটের লেনদেন প্রায় শতাধিক শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে৷ ওটিসি মার্কেটকে আরও গতিশীল ও আধুনিকায়ন করার লক্ষ্যে ২০১৯ সালের মাঝামাঝি সময়ে এটিবি চালু করা হবে। ডিএসই সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

তথ্যানুযায়ী, ২০১৮ সালে ওটিসি মার্কেটে মোট ২ কোটি ১৬ লাখ ৮৭ হাজার শেয়ার লেনদেন হয় যার মূল্য ৭০ কোটি ৩১ লাখ টাকা৷ গত বছরে মার্কেটটিতে লেনদেনের পরিমাণ ছিল ১ কোটি ৮ লাখ ৮৫ হাজার শেয়ার। এই হিসেবে ২০১৮ সালে ওটিসি মার্কেটে শেয়ার লেনদেন আগের বছরের তুলনায় বৃদ্ধি পেয়েছে ৯৯.২৩%৷

ওটিসি মার্কেটকে আরও গতিশীলতা ও আধুনিকায়নের লক্ষ্যে ডিএসই ও বিএসইসি কাজ করে যাচ্ছে৷ ফলে Alternative Trading Board Rules-2018 নামে একটি আইন প্রনয়ণ করতে যাচ্ছে যা খুব শীঘ্রই বিএসইসি গেজেট আকারে প্রকাশ করবে।

জানা যায়, বাজার এবং বিনিয়োগকারীদের বিনিয়োগে বৈচিত্রতা আনতে ডিএসই বিদ্যমান ইক্যুইটি নিভর বাজারের পাশাপাশি এটিবি (Alternative Trading Board) চালু করবে৷ বর্তমানে রেজিস্টার অফ জয়েন্ট স্টক কোম্পানিস এন্ড ফার্মসে (আরজেএসসি) এক লাখের বেশি কোম্পানি নিবন্ধিত রয়েছে যাদের শেয়ার লেনদেনের জন্য কোন প্লাটফম নেই৷ এসব কোম্পানিগুলোই হলো এটিবির সম্ভাব্য গ্রাহক৷ শুধুমাত্র ইক্যুইটি নয়, এর বাইরেও নতুন কিছু প্রোডাক্ট যেমন: ওপেন এন্ড মিউচ্যুয়াল ফান্ড, ওয়ারেন্টস, ডেরিভেটিবস ইত্যাদি অল্টারনেটিভ ট্রেডিং বোর্ডের সম্ভাব্য প্রোডাক্ট বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (অল্টারনেটিভ ট্রেডিং বোর্ড) রুলস, ২০১৮ জনসাধারণের মতামতের জন্য বিএসইসি’র ওয়েবসাইটে প্রকাশ করা হয়৷ ডিএসই ২০১৯ সালের মাঝামাঝি সময়ে এটিবি চালুর সময় নির্ধারণ করেছে বিএসইসি৷

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here