কপারটেকের অচলাবস্থার অবসান হচ্ছে শিগগিরই

স্টাফ রিপোর্টার : সম্প্রতি প্রাথমিক গণপ্রস্তাব (আইপিও) সম্পন্ন করা কপারটেক ইন্ডাস্ট্রিজের তালিকাভুক্ত ও শেয়ার লেনদেন নিয়ে চলমান অচলাবস্থার অবসান ঘটতে যাচ্ছে। ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জ (ডিএসই) কোম্পানিটিকে তালিকাভুক্ত না করলে এককভাবে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) কপারটেকের শেয়ার লেনদেন শুরু হতে পারে।

বিএসইসির সাম্প্রতিক এক পদক্ষেপে এমন আভাস পাওয়া গেছে। পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিএসইসি রবিবার, ৩০ জুন এক চিঠিতে ডিএসইকে তাদের কাছে থাকা কপারটেকের সাবস্ক্রিপশনের টাকা কোম্পানিটিকে বুঝিয়ে দিতে বলেছে।

উল্লেখ, ক্যাপিটাল ইস্যু রুলসে বর্ণিত যোগ্য বিনিয়োগকারী (Eligible Investor) বা প্রাতিষ্ঠানিক বিনিয়োগকারীদের একটি বড় অংশ তাদের শেয়ার কেনার টাকা (পে অর্ডার) ডিএসইর কাছে জমা করে। এই টাকা এখন কোম্পানিকে বুঝিয়ে দিতে বলা হয়েছে।

যেহেতু ইতোমধ্যে কপারটেক ইন্ডাস্ট্রিজ সিএসইতে তালিকাভুক্ত হয়েছে, তাই সিএসইতে এর লেনদেনে কোনো বাধা নেই। কোম্পানিটি আইপিওর টাকা বুঝে পেলেই সিএসই লেনদেনের তারিখ ঘোষণা করতে পারে বলে জানা গেছে।

গত এপ্রিল মাসে আইপিওর সাবসক্রিপশন শেষ হওয়ার পর কোম্পানিটি দুই স্টক এক্সচেঞ্জে তালিকাভুক্তির আবেদন করে। গত ২৩ মে সিএসইর পরিচালনা পর্ষদ কোম্পানিটির আবেদন অনুমোদন করে। কিন্তু অপর স্টক এক্সচেঞ্জ ডিএসই কোম্পানির আর্থিক প্রতিবেদনে কিছু অসঙ্গতির অভিযোগ তুলে প্রথমে এটিকে তালিকাভুক্ত করতে অস্বীকৃতি জানায়। পরবর্তীতে তারা এ বিষয়ে বিএসইসির দিকনির্দেশনা চায়। সব শেষে গত ২২ জুন ডিএসই কোম্পানির তালিকাভুক্তির সময়সীমা বাড়ানোর আবেদন জানায়।

কিন্তু বিএসইসি এখন পর্যন্ত ডিএসইর কোনো চিঠির জবাব না দিয়ে রবিবার, ৩০ জুন কোম্পানিকে আইপিওর টাকা বুঝিয়ে দেওয়ার নির্দেশ জানিয়ে চিঠি দেয়। চিঠিতে বলা হয়, এরই মধ্যে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জ (সিএসই) কপারটেক ইন্ডাস্ট্রিজকে তালিকাভুক্তির অনুমোদন দিয়েছে। গত ৯ জুন আইপিও সাবস্ক্রিপশনের মাধ্যমে বরাদ্দ পাওয়া শেয়ারহোল্ডারদের বিও অ্যাকাউন্টে শেয়ার হস্তান্তর করা হয়েছে। তাই ডিএসইর কাছে থাকা এলিজিবল ইনভেস্টরদের (ইআই) আইপিও সাবস্ক্রিপশনের টাকা কোম্পানিটির ব্যাংক অ্যাকাউন্টে পাঠানোর জন্য নির্দেশ দেওয়া হল।

নির্ভরযোগ্য সূত্রে জানা গেছে, ডিএসই কপারটেকের আর্থিক প্রতিবেদন সম্পর্কে অভিযোগ তুলে এর তালিকাভুক্তির বিষয়টি কৌশলে বিএসইসির দিকে ঠেলে দেওয়ায় বিএসইসি পাল্টা কৌশলের আশ্রয় নিয়েছে। ডিএসইকে কপারটেককে তালিকাভুক্ত করার নির্দেশ দিলে বিএসইসি আরেক দফা বিতর্কে জড়াতে পারে এমন আশংকায় ডিএসইকে পাশ কাটিয়ে এককভাবে সিএসইতে লেনদেন শুরু করার কৌশল নেওয়া হয়েছে। আইন অনুসারে যে কোনো একটি স্টক এক্সচেঞ্জে তালিকাভুক্ত হলেই লেনদেনের সুযোগ আছে। তাছাড়া আগেও কয়েকটি কোম্পানির ক্ষেত্রে এমনটি ঘটেছে। এদিকে বিএসইসির চিঠি নিয়ে আলোচনা করতে মঙ্গলবার, ০২ জুন পর্ষদ সভা ডেকেছে ডিএসই।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here